TMC has no plans to undertake any NRC:‘তৃণমূল ক্ষমতায় থাকলে বাংলায় এনআরসি হবে না, ডিটেনশন ক্যাম্প তৈরির প্রশ্নই নেই’,মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়
মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় (Photo Credit: IANS)

শিলিগুড়ি, ২২ অক্টোবর: তৃণমূল (TMC)ক্ষমতায় থাকলে বাংলায় এনআরসি (NRC) হবে না। শিলিগুড়ির উত্তরকন্যায় সাংবাদিক সম্মেলনে সাফ জানিয়ে দিলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। তৃণমূল সরকার যতদিন ক্ষমতায় আছে ততদিন রাজ্যে কোনও ডিটেনশন ক্যাম্প তৈরি হবে না। গত ৩১ আগস্ট অসমে (Assam) জাতীয় নাগরিক পঞ্জির চূড়ান্ত তালিকা প্রকাশ হয়েছে। যাতে রাষ্ট্রহীনের তালিকা ভুক্ত হয়েছেন অসমের ১৯লক্ষ বাসিন্দা। এরমধ্যে ১২ লক্ষ হিন্দু বাঙালি। সেই সব রাষ্ট্রহীন মানুষের জন্য অসমে ডিটেনশন ক্যাম্প (Detention Camp) তৈরি হচ্ছে। বেশকিছু হয়েও গিয়েছে। সেখানে এঁরা মনুষ্যেতর জীবন যাপন করছেন।

উল্লেখ্য, গতকালই মহারাষ্ট্র ও হরিয়ানায় বিধানসভা নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়েছে। একই সঙ্গে মধ্যপ্রদেশের ঝাবুয়ায় উপনির্বাচন হয়েছে। সব জায়গায় বিজেপির জয়ধ্বনির আভাস মিলেছে। ঠিক এই সময় মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের এনআরসি প্রসঙ্গে বক্তৃতা রাজনৈতিক তাৎপর্যপূর্ণ তাতে সন্দেহ নেই। মঙ্গলবার উত্তরবঙ্গের রাজ্য সচিবালয় উত্তরকন্যায় (Uttar Kanya) প্রশাসনিক বৈঠকে যোগ দেন মুখ্যমন্ত্রী। সেখানে তিনি বলেন, “বর্তমান সরকারের সমস্ত আধিকারিকদের উপস্থিতিতে দায়িত্ব নিয়ে বলছি বাংলায় কোনও এনআরসি হবে না। তাই এই রাজ্যে কোনও ডিটেনশন ক্যাম্প তৈরির প্রশ্ন আসছেই না। এটি তখনই সম্ভব হবে যদি আমরা ডিটেনশন ক্যাম্প তৈরির বরাত দিই। কিন্তু তা হবে না, বাংলায় আমরা মানে তৃণমূল কংগ্রেস ক্ষমতায় থাকলে এনআরসি হবে না। অসমে এনআরসি হয়েছে। ১৯৮৫ সালে অসম চুক্তির উপরে ভিত্তি করেই তা হয়েছে। সেখানে ক্ষমতায় বিজেপি তাই এনআরসি সহজে হয়েছে। আর বাংলায় ক্ষমতায় রয়েছে তৃণমূল মনে রাখবেন। এই তৃণমূল কংগ্রেসই সংসদে ধর্মের ভিত্তিতে নাগরিকত্ব বিলের বিরোধিতা করেছিল। যদি নাগরিকত্ব বিল পাস হয়ে যায় তাহলে মানুষ ছয় বছরের জন্য বিদেশি হিসেবে চিহ্নিত হয়ে যাবে। এই নাগরিকত্ব বিল কার্যকর হলে ভারতীয় বিশেষ করে বাঙালিদের একাংশ ছয় বছরের জন্য বিদেশি হয়ে যাবে। ছয় বছরের জন্য তখন কী করবেন, কী ঘটবে তখন?”  আরও পড়ুন-পুরনো নির্দেশিকা মেনে আগামী ১৪ নভেম্বর প্রেসিডেন্সিতে ছাত্র নির্বাচন, শুরু হয়ে গেল প্রস্তুতি

এদিকে কেন্দ্র বলছে অবৈধ অনুপ্রবেশকারীদের জন্য দেশজুড়ে ডিটেনশন ক্যাম্প তৈরি হবে। গত ২৪ জুলাই এই মর্মে রাজ্যসভায় রাষ্ট্রমন্ত্রী নিত্যানন্দ রাই বলেছিলেন, অবৈধ অনুপ্রবেশকারী ও বিদেশিদের চলাফেরা সীমাবদ্ধ করার জন্য একটি আদর্শ ডিটেনশন সেন্টার ম্যানুয়াল কেন্দ্র তৈরি করে ফেলেছে। সেই ম্যানুয়ালটি ইতিমধ্যেই প্রত্যেক রাজ্যকে পাঠিয়েও দেওয়া হয়েছে।