Narendra Modi at Haldia Live: 'তৃণমূল একের পর এক ফাউল করছে, বাংলা খুব দ্রুত তাদের রামকার্ড দেখাবে', হলদিয়ায় বললেন নরেন্দ্র মোদি
হলদিয়ায় পৌঁছলেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি

হলদিয়া, ৭ ফেব্রুয়ারি:  হলদিয়ায় চারটি বড় প্রকল্পের উদ্বোধনে বক্তৃতা দিলেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি-

  • নতুন প্রকল্পে হলদিয়ার ছবিটাই বদলে যাবে।। এক দেশ, এক গ্যাস গ্রিড-ব্যবস্থার প্রয়োজন রয়েছে।
  • আমদানি-রফতানিতে গুরুত্ব বাড়বে হলদিয়ার।
  • প্রাকৃতিক গ্যাস লাইন প্রকল্পে বাংলার বহু মানুষ উপকৃত হবেন। দূষণের মাত্রা কমবে।
  • প্রধানমন্ত্রী উর্জা গঙ্গা পাইপলাইন অগ্রগতি করছে। পশ্চিমবঙ্গলের পাশাপাশি, বিহার এবং ঝাড়খণ্ডের ১০ টি জেলা খুব লাভবান হবে। এই গ্যাস পৌঁছে গেলে পূর্বভারতের আর্থ সামাজিক ছবি বদলে যাবে।
  • উজ্জ্বল যোজনার ফলে পশ্চিমবঙ্গের ৯০ লক্ষ মহিলা, মেয়েদের সুবিধা লাভ করছে। আগে যেখানে ৪১% মহিলারা গ্যাস ব্যবহার করতেন, এখন তা ৯৯%-এ পৌঁছে গেছে।

মেদিনীপুরের হলদিয়ার সভায় বক্তৃতা দিলেন  নরেন্দ্র মোদি-

  • হলদিয়া পৌঁছেই উত্তরাখণ্ডের ভয়াবহ তুষারধস নিয়ে দুঃপ্রকাশ করেন। উত্তরাখণ্ডের মুখ্যমন্ত্রী ত্রিবেন্দ্র সিং রাওয়াতের সঙ্গে যোগাযোগ রাখছি। মা গঙ্গার উৎপত্তিস্থল বিপর্যয়ের মুখে। উত্তরাখণ্ডের উদ্ধারকাজ শুরু হয়েছে। সবাইকে নিরাপদ জায়গায় নিয়ে যাওয়া হয়েছে।
  • মেদিনীপুরের এই মাটিতেই তৈরি হয়েছিল তাম্রলিপ্ত জাতীয় সরকার। মেদিনীপুরের মাটির গুনে এখানে আসতে পেরে নিজেকে ধন্য মনে করছি।
  • পূর্ব মেদিনীপুরে একাধিক কর্মসংস্থান হবে। বাংলার প্রচুর মানুষ চাকরি পাবে।
  • যে সমস্ত প্রকল্প বাজেটে ঘোষিত হয়েছে বাংলার মানুষ সব প্রকল্পের সুবিধা পাবেন। বাংলার অনেক জায়গায় পাইপ লাইন গ্যাস পৌঁছবে। বাংলার সড়ক যোগাযোগে বিপুল পরিবর্তন আসছে।
  • একসময়ে শিক্ষাক্ষেত্রে দেশকে দিশা দেখাত বাংলা। গত ১০ বছরে বড় কোনও কারখানার উদ্বোধন হয়েছে? কর্মসংস্থান হয়েছে? স্বাধীনতার পর থেকেই এখানে বিকাশের রাজনীতি হয়নি।
  • মমতার অপেক্ষায় বাংলায় শুধু নির্মমতা জুটেছে। বাংলায় এতদিন কোনও পরিবর্তনই হয়নি।
  • বাংলার মানুষ তাই এখন পরিবর্তন চাইছে।
  • কংগ্রেসের আমলে দুর্নীতি ছিল, এখন বামেদের পুনরুজ্জীবন হয়েছে। গত ১০ বছরে বাংলা শেষ হয়ে গেছে।
  • ভারত মাতার স্লোগান শুনলে রেগে যান দিদি।
  • বাংলার সরকার দুর্যোগের সময় দুর্নীতি করে।
  • কেন্দ্রীয় প্রকল্পে চা-শ্রমিকদের অনেক উন্নতি হয়েছে। রাজ্যের কৃষক, গরিবদের জন্য এই সরকার মানে না।
  • বাংলার সব কৃষক দেখছে, বুঝতে পারছে, কৃষকদের নাম নিয়ে রাজনীতি করছে, আর কে তাদের জন্য কাজ করছে। কৃষকদের এই বিশ্বাস দিতে এসেছি, এই নির্বাচনের পর ভারতীয় জনতা পার্টির সরকার তৈরি হবে। ভারতের সরকারের কৃষকদের জন্য যে যোজনা, তা লাগু করা হবে। আপনারা যে লাভ পাচ্ছেন না। এতদিন যে লাভ থেকে বঞ্চিত হয়েছেন, সরকার গঠন হলে আমরা তাও দিয়ে দেব।
  • মমতা ব্যানার্জির সরকার গরিবদের কথা একেবারেই ভাবে না তার আরেক উদাহরণ আয়ুষ্মান ভারত প্রকল্প গ্রহণ না করা। বাংলার মানুষকে এর সুবিধা থেকে বঞ্চিত করা হচ্ছে।
  • বাংলার বিকাশের জন্য সড়ক, রেলওয়ে, ইন্টারনেট সুবিধা সবেতে কেন্দ্র সরকার অর্থ ব্যয় করছে। শৌচালয় এবং গরিবদের বাড়ি বানানোর অর্থ দিয়েছে কেন্দ্র সরকার। এখানে ডবল ইঞ্জিনের সরকার প্রয়োজন। বিজেপির সরকার আসলে আসল পরিবর্তন আসবে। আর পরিবর্তন কীভাবে এসেছে আমরা তা ত্রিপুরাতে দেখেছি। ত্রিপুরাতেও বামফ্রন্ট সরকার ধ্বংস করেছিল।
  • বাংলায় এক দেশ, এক রেশন কার্ড আনতে দিচ্ছেন না মমতা ব্যানার্জি, শ্রমিকদের সুবিধা লাভ করতে দিতে চান না।
  • বাংলা ফুটবলের জায়গা। আর তৃণমূল একের পর এক ফাউল করছে। 'পিসি', 'ভাইপো'-কে হঠাতে আপনারা প্রস্তুত।
  • তৃণমূলের তোলাবাজ, সিন্ডিকেট আর কিছুদিনের অতিথি। তৃণমূলের তোলাবাজদের ভয় পাবেন না।
  • তৃণমূল এবং এনাদের লুকোনো সঙ্গীদের থেকে সাবধান। বাম, কংগ্রেস, তৃণমূল মিলে ম্যাচ ফিক্সিং করছে। দিল্লিতে বন্ধ ঘরে বসে একযোগে বৈঠক করে

     

    ‘বিধানসভা নির্বাচনে বিজেপি সরকার গড়বে। বিজেপি ক্ষমতায় এসে যে টাকা পায়নি কৃষকরা, সেই টাকা মিলবে। আয়ুষ্মান প্রকল্পে চিকিৎসায় ৫ লক্ষ টাকা থেকে বঞ্চিত রাজ্যের মানুষ। রাজ্য সরকারের জন্য আয়ুষ্মান প্রকল্প থেকে বঞ্চিত রাজ্যের মানুষ।

আজ পূর্ব মেদিনীপুরের হলদিয়ায় (Haldia) সরকারি অনুষ্ঠানে অংশ নিতে রাজ্যে এসেছেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি (Narendra Modi)। কিছুক্ষণ আফা তাঁর হেলিকপ্টার হেলিপ্যাডে এসে পৌঁছয়। হলদিয়ায় পেট্রোলিয়াম মন্ত্রকের একটি অনুষ্ঠানে অংশ নেবেন তিনি। এর পাশাপাশি, হলদিয়াতেই রাজনৈতিক সভা করবেন। আজ আসছেন না মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জি।

আজ একুশে বিধানসভা নির্বাচনের প্রথম সভা তাঁর। প্রথমে এখানেই বক্তৃতা দেবেন। এরপর যাবেন পেট্রোলিয়াম মন্ত্রকের অনুষ্ঠানে। রয়েছে একাধিক কর্মসূচি। বিপিসিএলের এলপিজি টার্মিনাল, ধোবি-দুর্গাপুর প্রাকৃতিক গ্যাসলাইন ও হলদিয়ার রানিচকে একটি রেল ওভারব্রিজের উদ্বোধন করবেন প্রধানমন্ত্রী।

মোদি সফরের আগে শুভেন্দু অধিকারী বক্তৃতা দিয়ে জানান,‘হলদিয়ায় কেন্দ্র বিনিয়োগ করেছে, বহু কর্মসংস্থান হবে। ‘বাংলায় একটাও নতুন শিল্প আসেনি। রাজ্য সরকার শিল্পায়নে সম্পূর্ণ ব্যর্থ। কর্মসংস্থানের যন্ত্রণায় বিদ্ধ রাজ্যের মানুষ। কেন্দ্র ও রাজ্যে একই সরকার হলে উন্নয়ন হবে। রাজ্যে প্রকৃত পরিবর্তন আসেনি।'