Bulbul Effect: বুলবুলের দাপটে সকাল থেকেই কলকাতায় ঝড়বৃষ্টি, বালিগঞ্জে গাছ পড়ে মৃত যুবক
ঘূর্ণিঝড় (Photo Credits: IANS)

কলকাতা, ৯ নভেম্বর: বুলবুলের দাপট দক্ষিণবঙ্গ (South Bengal) সহ কলকাতায় (Kolkata) শুরু হয়ে গেছে। ঝড়ের দাপটে এক যুবকের মৃত্যুর খবর পাওয়া গেছে। মৃত (Death) ব্যক্তির নাম সোহেল শেখ, বয়স ২৫ বছর। ২৪ ঘণ্টার খবর অনুযায়ী, বালিগঞ্জে একটি রেঁস্তোরায় শেফের কাজ করতেন শেখ সোহেল। তিনি বিহারের বাসিন্দা। এখানে ট্যাংরায় বাড়ি ভাড়া করে থাকতেন তিনি। কাজে যোগ দিতে দুপুরে রেঁস্তোরা পৌঁছন তিনি। রেঁস্তোরায় ঢোকার সময়ই বিপত্তি ঘটে। রেঁস্তোরার বাইরে ওই চত্বরে থাকা একটি গাছ ভেঙে পড়ে তাঁর উপর। মাথায় গভীর চোট পান তিনি। ঘটনাস্থলেই মৃত্যু হয় তাঁর।

মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জি (CM Mamata Banerjee) আজ টুইট করে সকলকে সুস্থ ও সুরক্ষিত থাকার আবেদন জানিয়েছেন। অযথা ভয় পাওয়ার কোনো কারণ নেই সেই বার্তাও দেন। প্রশাসন ২৪ ঘণ্টা বিষয়টির ওপর নজরদারি চালাচ্ছে। সন্ধের পর এর দাপট আরও বাড়বে। আবহাওয়া দফতরের (IMD) খবর অনুযায়ী, শনিবার রাত ৮টা থেকে ১২টার মধ্যে এ রাজ্যের সাগর দ্বীপ ও বাংলাদেশের খেপুপাড়ার মধ্যবর্তী এলাকায় আছড়ে পড়তে চলেছে বুলবুল। দুপুর দুটোর সময় ওই দুই জায়গা থেকে বুলবুল মাত্র ৯৫ কিলোমিটার দূরে রয়েছে বলে আবহাওয়া দফতর সূত্রে খবর। কলকাতা থেকে তার দূরত্ব ২০০ কিলোমিটার। বাংলাদেশের খেপুপাড়া থেকেও বুলবুলের দূরত্বও কমে হয়েছে ৪৮৫ কিলোমিটার। বুলবুল আরও কাছে চলে আসায় পশ্চিমবঙ্গ এবং বাংলাদেশের উপকূলবর্তী এলাকায় জলোচ্ছ্বাসের সঙ্গে ঝোড়ো হাওয়ার গতিবেগও ক্রমশই বৃদ্ধি পাচ্ছে। এই ভয়ঙ্কর ঘূর্ণিঝড়ের (Cyclone) মোকাবিলায় প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ করছে প্রশাসনও। আরও পড়ুন, প্রবল শক্তি বাড়িয়ে আজ সন্ধেয় আছড়ে পড়তে চলেছে ঘূর্ণিঝড় 'বুলবুল', প্রভাব ঠেকাতে তৈরি প্রশাসন

গতকাল দক্ষিণ ২৪ পরগনার (South 24 Parganas) মতো উপকূলবর্তী জেলায় খোলা হয়েছে কন্ট্রোলরুম (Control room)। জেলার উপকূলবর্তী ব্লক এলাকায় প্রায় ৩০০ ফ্লাড সেন্টারকে তৈরি রাখা হয়েছে। সোমবার পর্যন্ত উপকূলবর্তী সমগ্র ব্লক ও পঞ্চায়েত অফিসে খোলা হয়েছে কন্ট্রোলরুম। সুন্দরবনের বাসিন্দাদের সচেতন করতে মাইকিং করা হয়েছে। পঞ্চায়েত ও ব্লক অফিসে শুকনো খাবার ও ত্রিপল মজুত করার কাজ চলছে। ঝড় শুরু হলে নদীতে মাছ ধরতে যাওয়ার নিষেধাজ্ঞাও জারি রয়েছে।