Arjun Singh: অর্জুন সিং হয়তো আজই ফুল বদলে তৃণমূলে, হতাশা বাড়ছে রাজ্য বিজেপি-র
Arjun-Singh, (Photo Credits: Twitter)

কলকাতা, ২২ মে: মুকুল রায় থেকে রাজীব ব্যানার্জি-একের পর বড় নেতা, বিধায়কদের তৃণমূলে 'ঘর ওয়াপসি' হয়েছে। আসানসোলের সাংসদ, ঘরের ছেলে বাবুল সুপ্রিয়কেও হাতছাড়া করেছে রাজ্য বিজেপি। এবার কি বারাকপুরের সাংসদ অর্জুন সিংয়ের ফুল বদলে তৃণমূল ঘর ওয়াপসি-র পথে? জল্পনাটা এতদিন ছিলই। এবার খবর, আজ রবিবারই হয়তো তৃণমূলে ফিরছেন বারাকপুরের সাংসদ অর্জুন সিং। যিনি ২০১৯ লোকসভা ভোটে টিকিট না পাওয়ায় দিদির বিরুদ্ধে তোপ দেগে বিজেপি-তে যোগ দিয়ে নিজের ক্যারিশ্মায় জিতে এসেছিলেন।

এমনকী ২০২২ বিধানসভা ভোটে দক্ষিণবঙ্গে চলা তৃণমূলের সুনামি সামলেও ভাটপাড়ায় নিজের গড় রক্ষা করে বিজেপির টিকিটে নিজের ছেলেকে জিতিয়ে এনেছিলেন। যদিও পুরভোটে অর্জুন গড় পুরোপুরি ভেঙে পড়ে। এরপর থেকেই বিজেপি-র সঙ্গে দূরত্ব বাড়তে শুরু করে অর্জুনের। পাটশিল্পের সঙ্গে জড়িতদের সমস্যা নিয়ে কেন্দ্রীয় মন্ত্রী পীযুষ গোয়েলের বিরুদ্ধে তোপও দেগেছিলেন অর্জুন। তখন থেকেই মনে হচ্ছিল অর্জুন পদ্মশিবির ছাড়তে চলেছেন। আরও পড়ুন: রাজ্যের মন্ত্রীকে টানা চার ঘণ্টা জেরা CBI-র

অর্জুন যে তৃণমূলে যোগ দিচ্ছেন তা সেখানকার বিভিন্ন পোস্টারও প্রমাণ দিচ্ছে। গতকাল, শনিবার থেকেই কাঁচড়াপাড়ায় তৃণমূলের বেশ কিছু পোস্টারে ছয়ে গিয়েছে। যেখানে মুখ্যমন্ত্রী তথা তৃণমূল সুপ্রি মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ও দলের সর্বভারতীয় সাধারণ সম্পাদক অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের মাঝে অর্জুন সিংয়ের ছবি দেখা যায়। তৃণমূলে ফের তাঁকে স্বাগত জানাতেই এই পোস্টার! বারাকপুর শিল্পাঞ্চলের কাঁচড়াপাড়া ছাড়াও জগদ্দলের মেঘনা মিল, শ্যামনগর ঝাউতলা মোড়-সহ ঘোষপাড়া রোডের বিভিন্ন জায়গাতেও এই এক পোস্টার দেখা গেছে। অর্জুন নিজেও দলবদলের সম্ভাবনার কথা উড়িয়ে দেননি। বারাকপুরের সাংসদ বললেন, দলবদল করলে তো সবাই জানতেই পারবে। পাশাপাশি সোশ্যাল মিডিয়ায় অর্জুন লেখেন, 'শুনেছি সমুদ্র নাকি আজ নিজেকে নিয়ে গর্ব করে। যেদিকে ঝড় এসেছে সেদিকেই নৌকা নিয়ে চলো।'

দেখুন টুইট

অর্জুন সিং বিজেপি ছাড়লে রাজ্যে বিজেপি-র আরও এক সাংসদ কমবে। আসানসোলে বাবুল সাংসদ পদ ছাড়ার পর সেখানে উপনির্বাচন হলেন জেতেন তৃণমূলের শত্রুঘ্ন সিনহা। এদিকে, অর্জুন তৃণমূলে যোগ দিলে বারাকপুর শিল্পাঞ্চল তথা উত্তর ২৪ পরগনার রাজনীতিতে নয়া সমীকরণ তৈরি হবে। তবে সমীকরণই হোক অর্জুন দল ছাড়লে রাজ্য বিজেপি-র কাছে যে বড় ধাক্কা তা নিয়ে কোনও সন্দেহ নেই।