আরিয়ান খান এবং বলিউডের এক নবাগতা অভিনেত্রীর মধ্যে মাদক নিয়ে কী আলোচনা হয়, তা খুঁজে পায় পুলিশ। এরপর আরিয়ান খান এবং সেই অভিনেত্রীর 'ড্রাগ চ্যাট' আদালতের হাতে তুলে দেওয়া হয়। যে খবর প্রকাশ্যে আসার পর শোরগোল শুরু হয়ে যায়।