E-Commerce Players Asked to Indicate Country of Origin on Products: পণ্য কোন দেশে উৎপাদিত জানাতে হবে অ্যামাজন এবং ফ্লিপকার্ট সহ ই-কমার্স সাইটগুলিকে, নতুন নির্দেশ কেন্দ্রের
Amazon, Flipkart (Photo Credits: IANS)

নতুন দিল্লি, ৮ জুলাই: অ্যামাজন (Amazon) এবং ফ্লিপকার্ট (Flipkart) সহ ই-কমার্স সাইটগুলিকে নতুন নির্দেশ কেন্দ্রীয় সরকারের। এবার ই কমার্স সাইটগুলিকে (E-commerce) তাদের ওয়েবসাইটে থাকা পণ্য কোথায় তৈরি তা জানাতে হবে। আজ এই নির্দেশ দিয়েছে ডিপার্টমেন্ট ফর প্রমোশন অফ ইন্ডাস্ট্রি অ্যান্ড ইন্টারনাল ট্রেড (Department for Promotion of Industry and Internal Trade)। ১ অগাস্টের মধ্যে এই নির্দেশ কার্যকর করতে হবে। জি বিজনেসের খবর অনুযায়ী, অগাস্টের ১ তারিখের পরে ই কমার্স ওয়েবসাইটের তালিকাভুক্ত যে কোনও নতুন পণ্যের গায়ে 'কান্ট্রি অফ অরিজিন' ট্যাগ থাকবে। অর্থাৎ প্রতিটি ই কমার্স সংস্থাকে তাদের পণ্য কোন দেশে উৎপাদিত তা জানাতে হবে ক্রেতাকে।

গত মাসে গ্যালওয়ান উপত্যকায় চিন ও ভারতীয় সেনার সংঘর্ষের পর দেশে চিন পণ্য বর্জনের আওয়াজ উঠেছে। সেই ক্রমবর্ধমান অনুভূতির পরিপ্রেক্ষিতে এই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছ বলে মনে করা হচ্ছে। বুধবার বিকেলে একটি বৈঠকের সময় সমস্ত ই-কমার্স সংস্থাগুলিকে এই সিদ্ধান্তের কথা জানিয়ে দেওয়া হয়েছে। প্ল্যাটফর্মগুলি সরকারের সিদ্ধান্তে খুশি হলেও তা কার্যকর করার জন্য আরও সময় চেয়েছিল। আরও পড়ুন: EPF: অগাস্ট পর্যন্ত EPF-র ২৪ শতাংশ দেবে কেন্দ্র

এর আগে সরকারি ই মার্কেটপ্লেসে বিক্রির জন্য সমস্ত পণ্য কোন দেশে উৎপাদিত তা জানানো বাধ্যতামূলক বলে জানিয়েছিল সরকার। নতুন কোনও পণ্য নথিভুক্তির সময়েই তা জানাতে হবে। এই পোর্টালে বাণিজ্যমন্ত্রক বিভিন্ন মন্ত্রক ও সরকারি সংস্থার জন্য পণ্য ও পরিষেবা খরিদ করে। এই পোর্টালে বিক্রেতাদের এবার থেকে তাঁদের পণ্যের উৎপাদনস্থল জানাতে হবে। এই পোর্টালে একটি মেক ইন ইন্ডিয়া ফিল্টারও রয়েছে, যার মাধ্যমে ক্রেতা জানতে পারেন নির্দিষ্ট পণ্য উৎপাদনে কতটা দেশিয় কাঁচামাল ব্যবহার করা হয়েছে। অর্থমন্ত্রী নির্মলা সীতারমন জানিয়েছিলেন, এবার থেকে দেশে ব্যাবসা করা প্রতিটি ই কমার্স সংস্থাকে তাদের পণ্য কোন দেশে উৎপাদিত তা জানাতে হবে ক্রেতাকে। যে সব পণ্য ইতিমধ্যেই নথিভুক্ত তাদের সম্পর্কেও অবগত করতে হবে। নিয়মিত এই নির্দেশ না মানলে পোর্টাল থেকে পণ্যটি সরিয়ে দেওয়া হতে পারে বলেও জানানো হয়েছে।