Mohun Bagan vs East Bengal Result: শেষ মুহূর্তে ড্র কলকাতা ডার্বি; সমালোচনার কাঠগড়ায় রেফারি
East Bengal vs Mohun Bagan SG (Photo Credit: Mohun Bagan SG/ X)

শনিবার কলকাতার সল্টলেক স্টেডিয়ামে প্রথম কলকাতা ডার্বি খেলে মোহনবাগান সুপার জায়ান্ট (Mohun Bagan Super Giant) ও ইস্টবেঙ্গল (East Bengal)। ম্যাচটি ২-২ গোলে ড্র হয়, যার পর উভয় পক্ষের সমর্থকরা রেফারিং নিয়ে বেশ সমালোচনা করেছে, একই সঙ্গে উঠে এসেছে ম্যাচের বেশ কিছু বিতর্কিত মুহূর্ত । এই ড্রয়ের ফলে ২০২০ সালে আইএসএলে দুই ক্লাব একে অপরের বিরুদ্ধে খেলার পর থেকে ইস্টবেঙ্গল প্রতিদ্বন্দ্বীদের বিরুদ্ধে প্রথম পয়েন্ট অর্জন করেছে সহায়তা করে। ৪৭ মিনিটে মোহনবাগান সুপার জায়ান্টসের ব্রেন্ডন হ্যামিলের সঙ্গে বাকবিতণ্ডায় জড়িয়ে পড়েন ইস্টবেঙ্গলের ফুল-ব্যাক নিশু কুমার। মনবীর সিং এবং আরমান্দো সাদিকুর বিরুদ্ধে দুটি সফল ট্যাকলের পরে নিশু সেই খেলোয়াড়কে কিছু বলেন। Davis Cup India vs Pakistan: পাকিস্তানে রাম আর শ্রী রামের জয়ধ্বনী, ৮৭ বছরের খেলোয়াড়েদর বিরুদ্ধে খেলে ডেভিস কাপে ২-০ এগিয়ে গেল ভারত

৫৩ মিনিটে পাল্টা আক্রমণে নেতৃত্ব দেন ইস্টবেঙ্গল অধিনায়ক ক্লেইটন। তিনি নন্দ কুমারের কাছে পাস দেন, তবে পরে সায়ন বন্দ্যোপাধ্যায় সুযোগটি মিস করেন। তবে নাওরেম মহেশ সিংয়ের বিরুদ্ধে দীপক টাংরি ফাউল করার পর রেফারি স্পট কিকের ইঙ্গিত দেন। মোহনবাগানের খেলোয়াড়দের প্রতিবাদ সত্ত্বেও রেফারি তাঁর সিদ্ধান্তে অনড় থাকেন। এছাড়া যখন ঘড়ির কাঁটায় মাত্র তিন মিনিট বাকি থাকতে দিমিত্রির গোলে প্রতিদ্বন্দ্বীদের বিরুদ্ধে অপরাজিত থাকার রেকর্ড ধরে রাখে মোহনবাগান সুপার জায়ান্টস তখন সাহাল আবদুল সামাদের ক্রস আটকে দেন জর্ডানের মাহের হিজাজি। তবে পেত্রাতোস বল রিসিভ করার আগেই নন্দকুমার শেখরের ওপর ঝাঁপিয়ে পড়েন সাহাল। যা ইস্টবেঙ্গলের খেলোয়াড়কে মাটিতে ফেলে দেয়। কোচ কার্লেস কুয়াদ্রাত দাবি করেছেন যে সাহালের সম্ভাব্য ফাউলটি রেফারি দেননি।

৬১ মিনিটে দিমিত্রি সায়ন বন্দ্যোপাধ্যায়কে ধাক্কা দিয়ে মাটিতে ফেলে দেন, যার ফলে উভয় দলের খেলোয়াড়রা উত্তপ্ত মুহূর্তে জড়িয়ে পড়েন, রেফারিরা সেখানে আসেন তাদের আলাদা করার জন্য। কিন্তু পেত্রাতোসের ধাক্কার পরে কোনও কার্ড প্রদর্শিত হয়নি তবে সায়ানকে বিষ্ণু টিএমের সাথে পরিবর্তন করেন কার্লেস কুয়াদ্রাত। রেফারির এই সব সিদ্ধান্ত নিয়ে দুই পক্ষের ভক্তই সোশ্যাল মিডিয়ায় সমালোচনার ঝড় তুলেছে।

ইস্টবেঙ্গল বনাম মোহনবাগান হাইলাইটস

তমোহনবাগানের দুর্বল ডিফেন্স অ্যাপ্রোচের জবাবে তৃতীয় মিনিটেই ইস্টবেঙ্গলের হয়ে গোল করেন অজয় ছেত্রী। ডান দিক থেকে ব্রেন্ডন হ্যামিলের ক্রসে আর্মান্দো সাদিকুর দুর্দান্ত ভলি সুপার জায়ান্টদের ১-১ গোলে সমতায় ফেরাতে সহায়তা করে। ইস্টবেঙ্গল অধিনায়ক ক্লেইটন সিলভা পেনাল্টি থেকে গোল করে দলকে লিড এনে দেন। তবে দিমিত্রি শেষ সময়ের ঠিক তিন মিনিট আগে গোল করে খেলা সমতায় শেষ করেন।