AIFF Official Deepak Sharma Arrested: মহিলা ফুটবলারদের মারধরের অভিযোগে গ্রেফতার সর্বভারতীয় ফুটবল আধিকারিক দীপক শর্মা
Deepak Sharma (Photo Credit: @BluePilgrims/ X)

মহিলা ফুটবল খেলোয়াড়দের মারধরের অভিযোগে সর্বভারতীয় ফুটবল ফেডারেশনের (AIFF) কার্যনির্বাহী কমিটির সদস্য দীপক শর্মাকে (Deepak Sharma) শনিবার গোয়া পুলিশ গ্রেপ্তার করেছে। ইন্ডিয়ান উইমেন্স লিগে খেলা ফুটবল দল খাদ এফসি (Khad FC)-র দুই মহিলা ফুটবলারের চড় মারা ও দুর্ব্যবহারের অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে দীপকের বিরুদ্ধে। অভিযোগ, গত ২৮ মার্চ ওই ক্লাবের মালিক দীপক তাঁদের ঘরে ঢুকে শারীরিক হেনস্থা করেন। ডেপুটি পুলিশ সুপার সন্দেশ চোদনকর (Sandesh Chodankar) জানিয়েছেন, এআইএফএফ-এর এক্সিকিউটিভ কমিটির সদস্য দীপক শর্মার বিরুদ্ধে আনুষ্ঠানিক অভিযোগ পাওয়ার পর শনিবার তাঁকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য ডাকা হয়। গোয়ায় থাকার সময় দীপক শর্মা দুই মহিলা ফুটবলারকে হেনস্থা করেছিলেন বলে অভিযোগ। চোদনকর জানিয়েছেন, মহিলাদের আঘাত করা, বলপ্রয়োগ করা-সহ একাধিক ধারায় তাঁকে গ্রেফতার করেছে মাপুসা পুলিশ। Women Footballers Physical Assault Case: ফের বিতর্কে সর্বভারতীয় ফুটবল! প্রাক্তন সহকর্মীর বিপক্ষে মারধরের অভিযোগ মহিলা খেলোয়াড়দের

আনুষ্ঠানিক অভিযোগ পাওয়ার পরে এআইএফএফের নির্বাহী কমিটির সদস্য দীপক শর্মাকে দিনের বেলা জিজ্ঞাসাবাদের জন্য ডাকা হয়। চোদনকর আরও ব্যাখ্যা করেছেন যে শর্মা, যিনি হিমাচল প্রদেশ ফুটবল অ্যাসোসিয়েশনের সেক্রেটারি-জেনারেলও, রাতের জন্য হেফাজতে থাকবেন এবং ৩১ শে মার্চ রবিবার তাকে আদালতে হাজির করা হবে। গতকাল জিএফএ সভাপতি কায়েতানো ফার্নান্দেজ বলেছেন, সমিতি ভুক্তভোগীদের মাপুসা থানায় অভিযোগ দায়ের করতে সহায়তা করেছে। বৃহস্পতিবার রাতে গোয়ায় মদ্যপ অবস্থায় পলক ভার্মা (Palak Verma) ও ঋতিকা ঠাকুরকে (Ritika Thakur) মারধর করেন দীপক। পরের দিন খেলোয়াড়রা সর্বভারতীয় ফুটবল ফেডারেশনের (এআইএফএফ) কাছে একটি অভিযোগ দায়ের করেন এবং তাৎক্ষণিক ব্যবস্থা নেওয়ার অনুরোধ জানান। হিমাচল প্রদেশের খাদ এফসি বর্তমানে ইন্ডিয়ান উইমেন্স লিগ ২-এর উদ্বোধনী সংস্করণে খেলছে। এখন পর্যন্ত তিন ম্যাচের দুটিতে দলকে নেতৃত্ব দিয়েছেন পলক।