Sachin Tendulkar: করোনা মোকাবিলায় প্রধানমন্ত্রী-মুখ্যমন্ত্রী ত্রাণ তহবিলে ৫০ লক্ষ টাকা দান সচিন তেন্ডুলকারের
(Photo Credits: Getty Images)

নয়াদিল্লি, ২৭ মার্চ: করোনাভাইরাসের (Coronavirus Outbreak) বিরুদ্ধে লড়াই করছে দেশবাসী থেকে শুরু করে কেন্দ্র-রাজ্য প্রশাসন। কেন্দ্র এবং প্রতিটি রাজ্যই তৈরি করেছে ত্রাণ তহবিল। যে যার সাধ্যমত দান করছেন সেই তহবিলে। এগিয়ে এসেছেন রাজনীতিবিদ থেকে ক্রীড়াবিদরা। এবার এগিয়ে এলেন মাস্টার ব্লাস্টার সচিন তেন্ডুলকার। ত্রাণ তহবিলে দান করলেন ৫০ লক্ষ টাকা। কেন্দ্র এবং রাজ্যকে (Prime Minister's and Chief Minister's Relief Fund) পৃথকভাবে ২৫ লক্ষ টাকা করে দান করলেন মাস্টার ব্লাস্টার (Sachin Tendulkar)।

একদিন আগেই সচেতনতার ভিডিও পোস্ট করেছিলেন সচিন। এরপরই প্রধানমন্ত্রী এবং মুখ্যমন্ত্রীর তহবিলে ২৫ লক্ষ টাকা করে দান করলেন সচিন। সূত্রের খবর, "সকলের মধ্যে সচেতনতা তৈরি করতে মাঝে মধ্যেই টুইটারে পোস্ট করছিলেন তিনি। এরপরই তিনি সিদ্ধান্ত নেন ত্রাণ তহবিলে টাকা দেওয়ার। এর আগেও অস্ট্রেলিয়ার দাবানলে বিপুল পরিমাণে অর্থসাহায্য করেছিলেন তিনি। যেকোনও কঠিন মুহূর্তে সকলে মিলে লড়াই করার পক্ষেই বিশ্বাসী সচিন।" আরও পড়ুন: Laxmi Ratan Shukla Donates Salary For Relief fund: রাজ্য আপৎকালীন ত্রাণ তহবিলে ৩ মাসের বেতন দিলেন মন্ত্রী লক্ষ্মী রতন শুক্লা 

গত মঙ্গলবার ২১ দিনের জন্য লকডাউন ঘোষণা করেন নরেন্দ্র মোদি। করোনাভাইসের সংক্রমণ রুখতে গোষ্ঠীসংক্রমণ রুখতে ভরসা একমাত্র লকডাউনই। মোদি সেদিন বলেছিলেন, "আমি দু'হাত জোড় করে আপনাদের কাছে অনুরোধ করছি। আপনি এই মুহূর্তে যেখানেই রয়েছেন। সেখানেই থাকুন।" একইসঙ্গে তিনি সকল দেশবাসীকে সতর্ক করে বলেছিলেন, আপনারা যদি এই ২১টা দিন নিজেকে ঘরবন্দি করতে না পারেন। তাহলে আপনারা ২১ বছর পিছিয়ে যাবেন।

করোনাভাইরাসের সংক্রমণের কারণে পিছিয়ে গিয়ছে আইপিএল। ২৯ মার্চ টুর্নামেন্ট শুরু হবে না। ১৫ এপ্রিল পর্যন্ত স্থগিত থাকছে আইপিএল। ইতিমধ্যেই একথা জানিয়েছে আইপিএল কমিটি। এই সিদ্ধান্ত আইপিএল-র দলগুলিকে জানানো হয়েছে। বিসিসিআই-র ওই কর্তা জানিয়েছিলেন, "টুর্নামেন্ট পিছিয়ে দেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছি। টুর্নামেন্ট ১৫ এপ্রিল পর্যন্ত স্থগিত। পরিস্থিতি স্বাভাবিক হলে সরকারের নির্দশের পরই ফের আইপিএলের সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে।"