VIRAL: ইংল্যান্ডে ড্রিমকার অনলাইন কম্পিটিশনে ল্যাম্বারগিনি জিতে বিহ্বল ভারতীয় দম্পতি, দেখুন ভিডিও
ল্যাম্বারগিনি জিতলেন কেরালার যুবক (Photo Credits: Video Grab)

বিশ্বজুড়ে মহামারী পরিস্থিতি বহুমানুষের চাকরি খেলেও এই সময়ই ইংল্যান্ডে বসবাসকারী ভারতীয় দম্পতির ভাগ্য খুলে গেল। ওই দম্পতি হলেন শিবু পাল ও লিনেট জোসেফ। দীর্ঘদিন ধরে তাঁরা ইংল্যান্ডের নটিংহ্যামের বাসিন্দা। এক অনলাইন স্বপ্নের গাড়ি এবং লাইফস্টাইল প্রতিযোগিতায় জিতে গেলেন ব্র্যান্ড নিউ ল্যাম্বারগিনি (Lamborghini) ও ২০ হাজার পাউন্ড আর্থিক পুরস্কার। মহামারীর কবলে পড়ে চাকরি খুইয়েছেন শিবু পাল। এখন চাকরি খোঁজা ভিন্ন তাঁর আর কোনওদিকেই নজর নেই। তিনি যে স্বপ্নের গাড়ি এবং লাইফস্টাইল প্রতিযোগিতার টিকিট কিনেছিলেন, তাও ভুলে গেছেন। তবে এই বিপর্যয়ের দিনে ভাগ্যলক্ষ্মী শিবু লিনেটের প্রতি সদয় বলতেই হবে। তাইতো ব্রান্ড নিউ ল্যাম্বারগিনি জিতে নিয়েছেন ওই দম্পতি।

এমন বিলাসবহুল গাড়ি মানুষের কাছে স্বপ্ন। কেননা সাধ্যাতীত মূল্য দিয়ে এই গাড়ি কেনা বেশিরভাগের পক্ষেই সম্ভব নয়। সেই গাড়ি জিতে নিয়েছেন ওই ভারতীয় দম্পতি। সঙ্গে ১৮ লক্ষ ৯৪ হাজার টাকা। তবে গাড়ির পরিবর্তে নগদ আর্থিক পুরস্কার রাখার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন ওই দম্পতি। মহামারীর বাজারে আচমকা এমন পুরস্কার জিতে রীতিমতো হকচকিয়ে গিয়েছেন শিবু পাল ও লিনেট জোসেফ। এমন লোভনীয় পুরস্কার জেতার পর তাঁদের প্রতিক্রিয়ার ভিডিও সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল হয়েছে। সাউন্ড ইঞ্জিনিয়ার শিবু বছর খানেক আগে ইংল্যান্ডে চলে যান। তিন আরও ভাল চাকরি খুঁজছিলেন। ইংল্যান্ডে যাওয়ার পরেপরেই লন্ডনের নটিংহ্যাম শহরে থাকতে শুরু করেন। নটিংহ্যাম সিটি হাসপাতালের নার্স লিনেট জোসেফের সঙ্গে বিবাহ বন্ধনে আবদ্ধ হন। তিনি বিওটিবি ড্রিম কার কম্পিটিশনের তিনটে টিকিট কিনেছিলেন।

টিকিট কেনার কথা প্রায় ভুলেই গিয়েছিলেন তিনি। এদিকে যখন উদ্যোক্তাদের তরফে তাঁর ফ্ল্যাটের দরজায় টোকা পড়ল, তখনও বিষয়টি বুঝে উঠতে পারেননি শিবু। বিওটিবি-র লোকজন এসেছে শুনে বিশ্বাসই হয়নি। আর বাসস্থানের চৌহদ্দির মধ্যে লালরঙের ল্যাম্বারগিনি দেখে তো শিবুর হাসিই থামছিল না। মনে হচ্ছিল স্বর্গে আছেন। এমনটা বাস্তব হতে পারে না। তবে গাড়ির স্টিয়ারিংয়ে হাত রেখে শিবুর অসামান্য হাসিতে খুশি উদ্যোক্তারাও। নিজেই বললেন আগে কখনও ল্যাম্বারগিনিতে চড়া দূর অস্ত, ছুঁয়েও দেখেননি। তাই বিশ্বাস হচ্ছে না। নিজেই গাডির বনেট খুলে আর্থিক পুরস্কারও দেখতে পেলেন। তবে গড়া নয়, বদলে টাকা নিতে চান ওই দম্পতি। এখন ভাড়া বাড়িতে আছেন। ওই টাকা দিয়ে বাড়ি কেনার পরিকল্পনা করছেন শিবু ও লিনেট।