Pragya Thakur: 'দুর্ব্যবহার' করেছে স্পাইস জেটের বিমানকর্মীরা দাবি প্রজ্ঞা ঠাকুরের, চরম ভোগান্তিতে পড়ে চিৎকার যাত্রীর
প্রজ্ঞা ঠাকুর (Photo Credits: IANS)

নতুন দিল্লি, ২৩ ডিসেম্বর: দিল্লি-ভোপালের (Delhi- Bhopal) বিমানে তুমুল বাদবিবাদে জড়ালেন বিজেপি (BJP) সাংসদ প্রজ্ঞা ঠাকুর (Pragya Thakur)। যার ফলে নির্ধারিত সময় পেরিয়ে গেল বিমান ছাড়তে। ভোগান্তিতে পড়লেন বিমানযাত্রীরা। যাত্রীদের মধ্যে থেকে একজন তাঁর ওপর চড়াও হয়। বিমানযাত্রীর সঙ্গে প্রজ্ঞা ঠাকুরের এই ভিডিওটি টুইটারে ভাইরাল হয়ে পড়ে। এরপর ফের নেটিজেনদের নিন্দার মুখে পড়েন তিনি।

বাদবিবাদের প্রাথমিক কারণ সম্বন্ধে জানা গেছে, স্পাইস জেটের (Spice Jet) বিমানকর্মীরা তাঁকে নির্ধারিত আসনে বসতে দেননি৷ তাঁর অভিযোগ, কর্তৃপক্ষকে গোটা বিষয়টা জানিয়েছিলেন তিনি। তাঁর দাবি "বিমানকর্মীরা আমার সঙ্গে দুর্ব্যবহার করেছে। এর আগেও এমন ঘটনা ঘটেছে। আবার ঘটল। এবার তো বসার জন্য যে জায়গা ঠিক করেছিলাম, ওরা সেখানে আমায় বসতে দেয়নি।" আরও পড়ুন, কলকাতা হাইকোর্টের কড়া নির্দেশ রাজ্য সরকারকে, তুলে নিতে হবে এনআরসি ও সিএএ সম্বন্ধিত সমস্ত বিজ্ঞাপন

তবে গোটা ঘটনার একেবারেই উল্টোটা জানায় স্পাইশ জেটের কর্তৃপক্ষ ৷ স্পাইশ জেটের কর্তৃপক্ষ তাঁকে জানায়, প্রজ্ঞা ঠাকুরের মতো ব্যক্তিত্বকে যাত্রী হিসেবে পেয়ে সত্যিই তারা গর্বিত ৷ তিনি আগে থেকেই ১এ আসন বেছে নিয়েছিলেন, তারপর নিজেই হুইল চেয়ার করে বিমানে উঠে আসেন৷ বিমানকর্মীরা এ ব্যাপারে কোনও কিছুই জানতেন না ৷ শারীরিকভাবে সক্ষম না হলে যাত্রীদের এমারজেন্সি আসনে বসতে দেওয়ার নিয়ম নেই৷ সেই কারণেই প্রজ্ঞা ঠাকুরকে অন্য আসনে বসার অনুরোধ করা হয় ৷ তবে তিনি বসতে চান নি৷ এই বচসার কারণেই বিমান আকাশে উড়তে বেশ দেরি করে ৷ এর ফলে বিমানের অন্যান্য যাত্রীরাও বিরক্ত হয় ৷ পরে অবশ্য উনি আসন পরিবর্তন করতে রাজি হন।

যাত্রীর সঙ্গে বিবাদের সময় তিনি জানান, তিনি প্রজ্ঞা ঠাকুর, তাই যেকোনো আসনে বসা তাঁর অধিকার। এই শুনে ক্ষুব্ধ হন জনতা।