Pakistan TV Scuffle Video: লাইভ টিভি চলাকালীন স্টুডিয়োতে মারামারি ইমরান খানের আইনজীবী ও মুসলিম লিগের নেতার, দেখুন ভিডিয়ো
The incident, which involved heated arguments and physical violence. (Photo Credits: X)

পাকিস্তানের নিউজ চ্যানেলের লাইভ টিভিতে বিতর্ক চলাকালীন হাতাহাতি, মারামারি। লাইভ টিভিতে বিতর্ক চলাকালীন এক বিষয়ে নিয়ে মতান্তর এমন জায়গায় পৌঁছয় যখন প্রাক্তন প্রধানমন্ত্রী ইমরান খানের আইনজীবী ( Imran Khan's lawyer) শের আফজল খান মারওয়াত (Sher Afzal Khan Marwat) ও পাকিস্তান মুসলিম লিগ (নওয়াজ) (PMLN) জনপ্রতিনিধি আফনান উল্লা খানের ( Afnan Ullah Khan) মধ্যে মারামারি লেগে যায়। নিমেষেই খবরের চ্যানেলের স্টুডিয়ো হয়ে যায় মল্লযুদ্ধের আখড়া।

ভিডিয়োতে দেখা যায় নওয়াজ শরিফের দল পাকিস্তান মুসলিম লিগ (নওয়াজ)-এর নেতা আফনান খান উত্তেজিত হয়ে চেয়ার থেকে উঠে গিয়ে মারতে থাকেন ইমরানের আইনজীবী শের আফজলকে। কিছুটা স্তম্ভিতভাব সামলে ইমরানের আইনজীবীও পাল্টা মার দিতে থাকেন। মার, পাল্টা মারে দু জনেই স্টুডিয়োর মেঝেতে উল্টে পড়ে যান। টিভি স্ক্রিন তখন ব্ল্য়াঙ্ক, তখন মারামারি আওয়াজ শোনা যাচ্ছে। আরও পড়ুন-ভুল ইঞ্জেকশন দিয়ে হাসপাতাল থেকে বের করে দিল অমানবিক চিকিৎসা কর্মীরা ! দেখুন যন্ত্রণায় কাতর যুবতীর তিলে তিলে মৃত্যুর ভিডিয়ো

দেখুন ভিডিয়ো

অনুষ্ঠানের সঞ্চালক, স্টুডিয়োর ভিতর থাকা চ্যানেলের কর্মীরা অনেক চেষ্টার পর দু জনের মারামারি থামান। টিভি চ্যানেলের লাইভ অনুষ্ঠানে সবটা ধরা পড়ে। ইমরানের আইনজীবী এই মারামারিতে বড় চোট পেয়েছেন বলে খবর। ইমরানকে জেলে আটকে রাখা নিয়ে এই বাক বিতণ্ডা শুরু হয়।

ইমরান খানের গ্রেফতারি নিয়ে পুরো পাকিস্তান আড়াআড়ি বিভাজিত। ক্ষমতা হাতছাড়া হওয়ার পরই দুর্নীতির অভিযোগে জেলে যেতে হয় ইমরানকে। ইমরানের দলের সমর্থকদের অভিযোগ, রাজনৈতিক ষড়যন্ত্রেই ইমরাকে জেলে পাঠানো হয়েছে। সেখান ক্ষমতাসীন দলের অভিযোগ, ইমরান দুর্নীতি করেছেন বলেই তাঁকে জেলে যেতে হয়েছে। ২০২৪ সালের গোড়ায় পাকিস্তানে নির্বাচন। তার আগে গোটা পাকিস্তান ঠিক কতটা বিভাজিত তা লাইভ স্টুডিয়োয় নেতা বনাম আইনজীবীর মল্লযুদ্ধে প্রমাণিত হল।