Ranu Mondal on Ayodhya Issue: রামমন্দির ও মসজিদের পাশে অযোধ্যায় গির্জার জমি চাইলেন রানু মণ্ডল, ভুয়ো খবরে দেশজুড়ে শোরগোল
রানু মণ্ডল ( Photo Credit: IANS)

ফের খবরের শিরোনামে রানু মণ্ডল  (Ranu Mondal) , তবে এবার অযোধ্যার বিতর্কিত জমির খবরে রানাঘাটের রানু। ৫৯ বছরের এই গায়িকা সোশ্যাল মিডিয়ায় রীতিমতো আওয়াজ তুলেছেন। সুপ্রিম কোর্ট রামমন্দির (Ram Mandir)  বাবারি মসজিদ (Babri Masjid) বিতর্ক মিটিয়ে ফেলেছে। অযোধ্যার বিতর্কিত জমিতে রামমন্দির যেমন নির্মিত হবে তেমনই মুসলিমদের জন্য পাঁচ একর জমিও দেওয়া হয়েছে। আচমকাই জানা গেল, রানু মণ্ডল নাকি খ্রিস্টানদের গির্জা তৈরির জন্য জমি চেয়েছেন। আর তা অযোধ্যার বিতর্কিত এলাকা থেকেই দিতে হবে। প্রধানবিচারপতি রঞ্জন গগৈ যদি এমন কিছু একটা নির্দেশিকা জারি করেন, তাহলে ধর্মনিরপেক্ষ ভারতের ঠিকঠাক ছবি প্রকাশ্যে আসবে। সংখ্যাগরিষ্ঠতার বিচারে দেশের তৃতীয় হল খ্রিস্টধর্ম। অযোধ্যায় তাদের জমি প্রাপ্য।

এদিকে অযোধ্যার জমি বিতর্ক রানু মণ্ডলের বক্তব্য প্রকাশ্যে আসতেই দেশজুড়ে হইচই পড়েছে। বিজেপি সমর্থকরা তো রেগে আগুন। এদিকে রানু মণ্ডলের বক্তব্যকে মুখ্য করে জনে জনে প্রচারও শুরু করেছে খ্রিস্টানদের একাংশ। বিযয়টি নিয়ে সন্দেহ হওয়াতে রানুকে জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়, তিনি তো আকাশ থেকে পড়েন। আসলে অযোধ্যার বিতর্কিত জমি নিয়ে রানুর তেমন আগ্রহ তো নেইই, উল্টে তিনি এবিষয়ে বিশদে কিছুই জানেন না। সুতরাং মন্তব্যের কোনও প্রশ্নই উঠছে না। বোঝা যায় তাহলে খ্রিস্টানদের জমি দিতে হবে সংক্রান্ত খবরটি ভুয়ো। রানুর নামে ভুয়ো খবর ছড়িয়ে ফের ফায়দা লোটার চেষ্টা করছে কিছু মানুষ। এবিষয়ে খ্রিস্টান মিশনারিদের হাত থাকতে পারে। কারণ খবরটা ভুো তারাও যখন বুঝতে পেরেছে তখন কেন প্রতিবাদ জানিয়ে কোনও বিজ্ঞপ্তি দেয়নি, এই নিয়েই উঠেছে প্রশ্ন। এদিকে রানু মণ্ডলের দাবি সম্বলিত টুইট দেখে অনেক দক্ষিণপন্থী নেটিজেন সোশ্যাল মিডিয়ার কমেন্ট বক্সে ক্ষোভ উগরে দিয়েছেন। এরপরেই বিজেপি সমর্থক অনুজ বাজপেয়ী বলেন ভুয়ো খবর ছড়িয়েছে বাজারে। আরও পড়ুন-Rajasthan Migratory Birds Death: রাজস্থানের সম্ভর লেকে উদ্ধার হাজারও পরিযায়ী পাখির দেহ, মৃত্যুর কারণ নিয়ে শোরগোল

এরপরেই মিশনারিদের এক হাত নেন শিক্ষাবিদ মধু পূর্ণিমা কিসওয়ার। তিনি বলেন, “যখন রানাঘাট প্ল্যাটফর্মে না খেয়ে অসহায়ের মতো রানু মণ্ডলের দিন কাটছিল তখন তো তাঁর জন্য খ্রিস্টান মিশনারিগুলি কোনও বন্দোবস্ত করেনি। আর এখন রানু যখন প্রচারের আলোয় তখন তাঁরই নাম ভাঙিয়ে কিনা নিজেদের আখের গোছানোর চেষ্টা করছে।” এদিকে রানুর নামে ভুয়ো খবর ছড়াতেই খ্রিস্টান ধর্মাবলম্বীরা অযোধ্যায় জমি চাইতে শুরু করে। তবে রানু তো আর এমন দাবি করেননি। তিনি তো শুধু লতা মঙ্গেশকরের গান গেয়ে প্রচারের আলোতে এসেছেন। হিমেশ রেশমিয়া তাঁর ছবিতেও রানু মণ্ডলকে দিয়ে গান গাইয়েছেন।