Netaji or Actor Prasenjit Chatterjee?: নেতাজির বদলে অভিনেতা প্রসেনজিতের ছবি উন্মোচন করলেন রাষ্ট্রপতি? টুইটারে তুলকালাম!
রাষ্ট্রপতি রামনাথ কোবিন্দ (Picture Source: President Of India/ Twitter)

কলকাতা, ২৫ জানুয়ারি: একী গেরো!  ২৩ জানুয়ারি নেতাজি সুভাষচন্দ্র বোসের (Netaji Subhas Chandra Bose) জন্মবার্ষিকীতে রাষ্ট্রপতি রামনাথ কোবিন্দ (President Ramnath Kovind) নেতাজির যে ছবিটি উন্মোচন করেন তা আসলে কি টলিউড অভিনেতা প্রসেনজিৎ চ্যাটার্জি অভিনীত গুমনামি ছবির পোর্ট্রেট? অর্থাৎ, রাষ্ট্রপতি যাঁকে নেতাজি হিসেবে সম্মান জানালেন তিনি আসলে প্রসেনজিৎ চ্যাটার্জি! রাষ্ট্রপতির এই ছবিটিকে ঘিরে  ওঠে তুমুল সমালোচনার ঝড়।

সাংসদ মহুয়া মৈত্র, কংগ্রেস নেতা গৌরব পান্ধি, কমেডিয়ান কুণাল কামরা থেকে নেটিজেনরা ছবিটি ঘিরে ট্রোল করতে শুরু করেন। যদিও একে একে পরে তাঁরা পোস্ট ডিলিট করে দেন। এত বড় কাণ্ডজ্ঞানহীনের মত কাজ কীকরে রাষ্ট্রপতি ভবনের মত সরকারি দপ্তরে করা হল তা নিয়ে প্রশ্ন উঠতে থাকে নানা মহলে। প্রশ্ন ওঠে বাঙালির সংস্কৃতিকে এভাবে অবমাননা করার মানে কী? মহুয়া মৈত্র এদিন টুইটটি রিটুইট করে লেখেন, 'রাম মন্দিরে ৫ লক্ষ টাকা অনুদানের পর নেতাজি ভেবে অভিনেতা প্রসেনজিৎ চ্যাটার্জির ছবি উন্মোচন করে দিলেন। ভগবানই দেশকে রক্ষা করুক, কারণ এই সরকার পারবে না।' যদিও টুইটটি পরে তিনি ডিলিট করে দেন। কংগ্রেস নেতা এবং মুখপাত্র গৌরব পান্ধিও রিটুইট করে এই ঘটনাটির সমালোচনা করেন। পাশাপাশি তিনি এ প্রশ্নও তোলেন, তবে কি আমরা বেন কিংসলেকে গান্ধীজি এবং রোহন শেঠকে নেহেরু হিসেবে ধরে নেব?' আরও পড়ুন, ভোটারদের নিরাপত্তা প্রশ্নে রাজ্যপুলিশকে টুইটে খোঁচা জগদীপ ধনখড়ের, পাল্টা বললেন ফিরহাদ হাকিম

 

বাংলার ঋষি মনীষীদের নিয়ে বিজেপির নেতা মন্ত্রীরা কিছু না কিছু ভুল তথ্য, ভুল মন্তব্য করেই চলেছেন, তা নিঃসন্দেহে অবমাননাকর। কিন্তু রাষ্ট্রপতি ভবনে রাষ্ট্রপতি নিজের হাতে ভুল ছবি উন্মোচন করছেন, তা এর থেকেও বেশি অবমাননাকর বলে দাবি জানান নেটিজেনরা।

কখনও রবীন্দ্রনাথ 'টেগোর', বিরসা মুণ্ডার মূর্তি, বিদ্যাসাগর আবার কখনও চৈতন্যদেবকে নিয়ে ভুল তথ্য উঠে এসেছে দিলীপ ঘোষ, স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ আবার জেপি নাড্ডার কথায়। পশ্চিমবঙ্গের সংস্কৃতি একটি বড়সড় প্রশ্ন চিহ্নের মুখে পড়তে চলেছে বলে দাবি করতে থাকেন নেটিজেনরা।

এই বিতর্কের মধ্যেই জানা যায় রাষ্ট্রপতি ভবনে যে ছবিটি উন্মোচন করা হয় তা আসলে বাঙালি শিল্পী পরেশ মাইতির আঁকা একটি পুরনো ছবি থেকে আঁকা। পরিচালক সৃজিত মুখার্জি এবং সাংবাদিক রাজদীপ সারদেসাই এবিষয়টি পরে নিশ্চিত করেন।