MPs' Overnight Protest: পার্লামেন্টের লনে ৮ সাংসদের জন্য এল গরমাগরম ইডলি, চা, খোলা আকাশরে নিচে কেমন কাটল ডেরেক ও'ব্রায়েনের রাত?
পার্লামেন্টের লনে সাসপেন্ডেড সাংসদরা (Photo Credits: ANI)

নতুন দিল্লি, ২২ সেপ্টেম্বর: কৃষি বিল নিয়ে রাজ্যসভায় বিক্ষোভ দেখিয়ে ৮ জন সাংসদ বরখাস্ত হয়েছিলেন। তাঁদের বিরুদ্ধে শৃঙ্খলাভঙ্গের অভিযোগ এনে বরখাস্ত করেন রাজ্যসভার চেয়ারম্যান এম বেঙ্কাইয়া নায়ডু। এঁরা প্রত্যেকেই সংসদের লনে (Parliament Lawn) গান্ধীমূর্তির আশপাশেই সোমবারের রাত কাটালেন। মঙ্গলবার সকালে ৮-জনকেই চা খাওয়ার প্রস্তাব দিয়েছিলেন ডেপুটি চেয়ারম্যান হরিবংশ সিং। তবে, বরখাস্ত সাংসদরা সেই প্রস্তাব প্রত্যাখান করেন এবং এই চা-রাজনীতি'-কে কৃষক বিরোধী বলে কটাক্ষও করেন। সংসদের লেন বসে অস্থান বিক্ষোভ করছেন সাংসদরা দলীয়নেতৃত্বরা এসে বিক্ষোভরত সাংসদদের সঙ্গে দেখা করে গেছেন। সাসপেন্ড হওয়া সাংসদদের মধ্যে আছেন তৃণমূলের ডেরেক ও'ব্রায়েন ও দোলা সেন, কংগ্রেসের রাজীব সতভ, রিপুন ভোরা ও সৈয়দ নাসির হুসেন, সিপিএমের কে রাগেশ ও ইলামারাম করিম এবং আপ-এর সঞ্জয় সিং৷

জানা গিয়েছে, চলতি বাদল অধিবেশনের শেষ পর্যন্ত বহাল থাকবে তাঁদের সাসপেনশন। বরখাস্ত হওয়া সাংসদদের দাঁড়িয়েছেন তৃণমূল সুপ্রিমো মমতা ব্যানার্জি। কলকাতা থেকে তিনি প্রথমে টুইট করেন, 'কৃষকদের স্বার্থরক্ষার লড়াই করতে গিয়ে আট সাংসদের সাসপেন্ড হওয়ার ঘটনা দুর্ভাগ্যজনক এবং সরকারের স্বৈরাচারী মনোভাবের প্রতিফলন৷ গণতান্ত্রিক বিধি ও নীতিকে সম্মান করে না এরা৷ আমরা এই ফ্যাসিবাদী সরকারের সামনে মাথা নোয়াবো না। সংসদে এবং রাস্তায় নেমে লড়াই চালিয়ে যাব' এর পরে নবান্নে বিরোধিতার সুর আরও চড়ান মমতা। আন্দোলনের ডাক দিয়ে তিনি বলেন, 'হিটলারি কায়দায় দেশ চালাচ্ছে মোদির সরকার।'  আরও পড়ুন- Kangana Verses Deepika: বলিউডের মাদকচক্রে এবার দীপিকা পাদুকোনের নাম, তোপ দাগলেন কঙ্গনা

এদিকে তৃণমূলনেত্রী যে ভাবে কৃষি বিলকে সামনে রেখে সাসপেন্ডেড কংগ্রেস সাংসদদের সঙ্গে কথা বলে তাঁদের সবাইকে উদ্বুদ্ধ করেছেন, তাতে নতুন রাজনৈতিক সমীকরণের ইঙ্গিত পাচ্ছেন অনেকেই৷ তাঁর নির্দেশেই সংসদ চত্বরে ধরনায় বসেছেন আট সাংসদ। রবিবার কৃষি বিলের বিরুদ্ধে সর্বাত্মক বিরোধিতার ছবি দেখেছিল সংসদ। এ দিনও তার ব্যতিক্রম হয়নি। বিক্ষোভরত সাংসদদের সমর্থন জানান বিরোধী দলের তাবড় নেতা-নেত্রীরা৷ সপা সাংসদ জয়া বচ্চন, ন্যাশনাল কনফারেন্স নেতা ফারুক আবদুল্লা, কংগ্রেসের গুলাম নবি আজাদ, দিগ্বিজয় সিং, আহমেদ প্যাটেল ও মল্লিকার্জুন খাড়গে, আরজেডি নেতা মনোজ ঝা, এনসিপি নেত্রী সুপ্রিয়া সুলেরা একে একে বিক্ষোভে যোগ দেন৷ এসেছিলেন সিপিএমের বিকাশরঞ্জন ভট্টাচার্যও৷ অধীর চৌধুরী এলেও বেশিক্ষণ ছিলেন না। সংসদে যে ভাবে কৃষি বিল পাশ করা হয়েছে এবং বিরোধী দলের সাংসদদের সাসপেন্ড করা হয়েছে, তার বিরুদ্ধে সরব হয়েছেন রাহুল গান্ধীও৷