Cash For Query Allegations: মহুয়া মৈত্রের চিঠির জবাবে ২ নভেম্বর হাজির হওয়ার নির্দেশ, ভিডিয়োতে শুনুন সংসদের এথিকস কমিটির চেয়ারম্যানের বক্তব্য
Photo Credits: ANI & FB

নয়াদিল্লি: বিজেপি সাংসদ নিশিকান্ত দুবের অভিযোগের ভিত্তিতে টাকার বদলে প্রশ্ন কাণ্ডে (Cash For Query Allegations) তৃণমূল কংগ্রেস সাংসদ মহুয়া মৈত্রকে (TMC MP Mahua Moitra) ৩১ অক্টোবর তলব করেছিল সংসদের এথিকস কমিটি (Parliament Ethics Committee)। তার জবাবে মহুয়া মৈত্র ৪ নভেম্বরের পর যেতে পারবেন বলে চিঠি দিয়ে জানান। শনিবার তার ভিত্তিতে আলোচনা করে সংসদের এথিকস কমিটি ফের তৃণমূল সাংসদকে ২ নভেম্বর তলব করল।

এপ্রসঙ্গে সংসদের এথিকস কমিটির চেয়ারম্যান বিনোদ সোনকর (Parliament Ethics Committee Chairman Vinod Sonkar) বলেন, "গত ২৬ অক্টোবর এথিকস কমিটির বৈঠক ছিল। নিশিকান্ত দুবের (Nishikant Dubey) মৌখিক বিবৃতি (oral statement) রেকর্ড করা হয়েছে এবং আইনজীবীর বক্তব্যও (lawyer's statement) শোনা হয়। এরপরই কমিটি সিদ্ধান্ত নেয় যে ৩১ অক্টোবর মহুয়া মৈত্রকে ডেকে এই বিষয়ে জানতে চাওয়া হবে। তাই তাঁকে সমনও পাঠানো হয়। তিনি কমিটিকে চিঠি পাঠিয়ে কিছুটা সময় চেয়েছিলেন। তাই কমিটি ফের তাঁকে নভেম্বরের ২ তারিখ হাজির (appear) হওয়ার নির্দেশ দিয়েছে।" আরও পড়ুন: Kharge On Economy: অর্থনীতির দুর্দশা নিয়ে প্রধানমন্ত্রীকে তোপ কংগ্রেস সভাপতি মল্লিকার্জুন খাড়গের

দেখুন ভিডিয়ো:

শুক্রবার নিজের পাঠানো চিঠিটি টুইট করে মহুয়া লেখেন, আগামী ৪ নভেম্বর পর্যন্ত সংসদীয় ক্ষেত্রে পূর্বনির্ধারিত কিছু কর্মসূচি (pre-scheduled constituency programmes) রয়েছে। তারপরই সংসদীয় এথিকস কমিটির মুখোমুখি হবেন। ৫ নভেম্বরের পর কমিটির সুবিধা অনুযায়ী যে কোনওদিন, যে কোনও সময় ডাকা হলে তিনি হাজির হবেন। আগেই লিখিত ভাবে একথা কমিটিকে জানিয়েছিলেন যে তিনি কমিটির সামনে হাজির হয়ে নিজের বক্তব্য বলতে আগ্রহী। তবে দুবাইয়ের ব্যবসায়ী দর্শন হীরানন্দানিকেও যেন কমিটি ডেকে পাঠায়। তাঁর বক্তব্যও এ ক্ষেত্রে শোনা জরুরি। কারণ, ওই ব্যবসায়ী ইতিমধ্যেই একটি সংবাদমাধ্যমে প্রকাশ্যে জানিয়েছেন যে কমিটির সামনে হাজির হতে তাঁর আপত্তি নেই। তাই মহুয়াকে যেন ওই ব্যক্তিকে পাল্টা প্রশ্ন করার অধিকার দেওয়া হয়।