Uttar Pradesh: প্রেম কাড়ল জীবন, বছর ২৫ এর যুবককে গাছে বেঁধে পুড়িয়ে মারল প্রেমিকার পরিবার
প্রতীকী ছবি (Photo Credits: PTI)

প্রতাপগড়, ২ জুন: প্রেমে পড়েছিলেন। সোশ্যাল মিডিয়ায় পছন্দের নারী ছবি সমেত ভিডও পোস্ট করে আগেই বিপাকে পড়া। জেলে খেটেও প্রায়শ্চিত্য হল না। ওই যুবককে গাছে বেঁধে পুড়িয়ে মারার মতো নৃশংস ঘটনা ঘটল। অভিযোগের তির তরুণীর পরিবারের বিরুদ্ধে। মৃত যুবকের নাম অম্বিকা প্যাটেল(২৫)। সোমবার রাতে মর্মান্তিক ঘটনাটি ঘটেছে উত্তরপ্রদেশের (Uttar Pradesh) প্রতাপগড়ের ফাতানপুর থানা এলাকার ভুজাউনি গ্রামে। ওই গ্রামেই অম্বিকাবাবুর বাড়ি। ছেলেকে গাছে বেঁধে গায়ে পেট্রোল ঢেলে আগুন ধরিয়ে দেওয়া হয়েছে। খবর পেয়েই ঘটনাস্থলে দৌড়ে যায় যুবকের পরিবারের লোকজন। সঙ্গে ছিল গ্রামের বাসিন্দাদের একটা বড় অংশ। ততক্ষণে পুড়ে কালো হয়ে গিয়েছে যুবকের শরীর।

অভিযুক্তদের গ্রেপ্তারের দাবিতে তৎক্ষণাৎ একটি পুলিশ জিপ ও একটি ১১২ ডায়লের গাড়িতে আগুন লাগিয়ে দেয় উত্তেজিত জনতা। মৃতের পরিবারের তরফে জানানো হয়, প্রেম করতে গিয়ে জীবনটা খোয়ালেন অম্বিকা। গ্রামেরই এক তরুণীর প্রেমে পড়েছিলেন তিনি। বেশ কয়েকমাস আগে তরুণীকে নিয়ে সোশ্যাল মিডিয়ায় ভিডিও পোস্ট করে প্রেম জাহির করেন ওই যুবক। এরপরই তরুণীর পরিবারের তরফে হেনস্তার অভিযোগ এনে থানায় এফআইআর দায়ের হলে ফাতানপুর থানার পুলিশ অম্বিকাকে গ্রেপ্তার করে। এতদিন জেলে থাকার পর কয়েকদিন আগেই মুক্তি পেয়েছিল ওই যুবক। এরপরেই এমন ভয়াবহ ঘটনা ঘটল। আরও পড়ুন-COVID-19 Cases In India: ২৪ ঘণ্টায় নতুন আক্রান্ত ৮, ১৭১, দেশে মোট কোভিড রোগীর সংখ্যা ২ লাখ ছুঁই ছুঁই

জানা গিয়েছে, ওই তরুণী পুলিশ কনস্টেবলের চাকরি নিয়ে এই মুহূর্তে কানপুরে পোস্টিং। প্রতাপগড়ের পুলিস সুপার অভিষেক সিং জানান, বেশ কয়েকজন মিলে অম্বিকা প্যাটেলকে সোমবার রাতে তাঁর বাড়ি থেকে টেনে বের করে এনে গাছের সঙ্গে বেঁধে আগুন লাগিয়ে দেয়। পেট্রোল ঢেলে আগুন জ্বালিয়ে ঘটনাস্থল থেকে চম্পট দেয় অভিযুক্তের দলটি। ইতিমধ্যেই দেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য় পাঠানো হয়েছে। খুনের মামলা রুজু করে তদন্তে নেমেছে পুলিশ। অভিযুক্তদের ধরতে চলছে খানাতল্লাশি।