Gujarat: প্রেমিকার শখ পূরণের তাড়নায় রক্তের বন্যায় ভাসালেন প্রতিবেশী মহিলাকে, বাড়ি থেকে টাকা গয়না লুট যুবকের
প্রতীকী ছবি (Photo Credits: Pixabay)

রাজকোট, ১৯ ফেব্রুয়ারিঃ প্রেমিকার শখ পূরণ করার তাড়নায় প্রতিবেশী মহিলাকে খুন করার অভিযোগ উঠল এক যুবকের বিরুদ্ধে। মহিলার বাড়ি থেকে টাকা এবং গয়না চুরি করার লক্ষ্যে তাঁকে ধারালো অস্ত্র দিয়ে কুপিয়ে খুন করা হয়েছে বলে পুলিশ সূত্রে খবর। প্রেমিকাকে দামী উপহার কিনে দেওয়ার জন্যে চুরি এবং খুনের পরিকল্পনা করেন ওই যুবক। ১৪ ফেব্রুয়ারি ঘটনাটি ঘটেছে গুজরাটের (Gujarat) রাজকোটে।

পুলিশ সূত্রে জানা গিয়েছে, মৃতা মহিলার নাম হেমালি ভারু (২৭)। দু বছরের এক কন্যা সন্তান রয়েছে তাঁর। প্রেম দিবসে (Valentine's Day) ঘরের বিছানায় ক্ষত বিক্ষত অবস্থায় স্ত্রীকে উদ্ধার করেন স্বামী। বয়ে যাচ্ছে রক্তের বন্যা। হেমালি খুনে তাঁর স্বামী অল্পেশ ভারু জড়িত রয়েছে বলে পুলিশের প্রাথমিক সন্দেশ হয়েছিল ঠিকই। কিন্তু তদন্ত যত এগিয়েছে সন্দেশের তীর গিয়েছে প্রতিবেশী যুবক দিকে। তাঁর কাছ থেকে উদ্ধার হয়েছে মৃতা মহিলার গয়না, টাকা সহ বাড়ির বেশ কিছু মূল্যবান জিনিস। ইতিমধ্যেই অভিযুক্ত যুবককে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

মহিলা খুনের রহস্য সন্ধানে নেমে রাজকোট ক্রাইম ব্রাঞ্চের তদন্তে উঠে এসেছে, অভিযুক্ত যুবক সুরাটের একটি আসবাবপত্র কারখানায় কাজ করতেন। ঘটনার তিন দিন আগে সুরাট থেকে রাজকোটে আসেন তিনি। এই শহরেই থাকেন তাঁর প্রেমিকা। পুলিশের কাছে অভিযুক্ত জানিয়েছেন, রাজকোটে ফিরে প্রেমিকার সঙ্গে দেখা করেন তিনি। প্রেমিকা তাঁর থেকে বেশ কিছু টাকা চেয়েছিল। আর সেই টাকা জোগাড় করার জন্যে প্রতিবেশী তথা দূর সম্পর্কের আত্মীয় হেমালিকে খুন করে তাঁর ঘর থেকে টাকা, গয়না চুরি করেন তিনি।

১৪ ফেব্রুয়ারি বাড়িতেই ছিলেন হেমালি এবং তাঁর স্বামী অল্পেশ। দুপুরের দিকে হেমালির স্বামী একটা কাজে বেরিয়েছিলেন। ফিরে এসে ডাকাডাকি করেন অল্পেশ। স্ত্রীর সাড়া না পেয়ে দরজা ভেঙে ভিতরে ঢোকেন তিনি। তাঁদের একরত্তি মেয়ে কাঁদতে কাঁদতে বাবাকে এসে জড়িয়ে ধরে। ঘরে গিয়ে অল্পেশ দেখেন, বিছানায় রক্তাক্ত হেমালির দেহ পড়ে রয়েছে।