Gujarat: চাকরি জোগাতে নম্বর বাড়িয়ে ভুয়ো মার্কশিট তৈরির ব্যবসা চলছিল রমরমিয়ে, মাঝপথে গ্রেফতার
FIR and Arrest (Photo Credits: IANS)

মেহসানা, ১৫ জুলাইঃ নকল মার্কশিট তৈরির দায়ে গুজরাতের (Gujarat) মেহসানা জেলা থেকে দুই ব্যক্তিকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। প্রায় ৫০ টির বেশি ভুয়ো মার্কশিট উদ্ধার হয়েছে তাঁদের কাছ থেকে। চাকরিপ্রার্থীদের চাকরি নিশ্চিত করতে এই ধরণের জাল মার্কশিট তৈরি করতেন তাঁরা। এছাড়াও দশম এবং দ্বাদশ শ্রেনির পড়ুয়াদের জন্যেও নম্বর বাড়িয়ে নকল রেজাল্ট বার করে দিতেন।

আরও পড়ুনঃ আরও বেআইনি সম্পত্তির হদিশ, তিহাড়েই অনুব্রতকে জেরা করতে চায় সিবিআই

ভুয়ো মার্কশিট (Fake Marksheets) তৈরির এই অবৈধ ব্যবসার মূল মাথা কুলদ্বীপ পারমারকে (২৩) ইতিমধ্যেই গ্রেফতার করেছে মেহসানা লোকাল ক্রাইম ব্রাঞ্চ। এক পুলিশ কর্মকর্তা জানান, বেসরকারি সংস্থায় চাকরি পাওয়ার জন্যে চাকরপ্রার্থীরা কুলদ্বীপের থেকে ভুয়ো মার্কশিট বানাতেন। আর তা বানানোর জন্যে মার্কশিট প্রতি দেড় হাজার টাকা করে পারিশ্রমিক নিতেন কুলদ্বীপ। একটি দোকানঘর ভাড় নিয়ে নিজের ফটোকপির দোকান খুলেছিলেন অভিযুক্ত। কম্পিউটারে ফটোশপের মাধ্যমে মার্কশিটে নাম এবং নম্বর পাল্টে দিয়ে কুলদ্বীপ অনায়াসেই বানিয়ে ফেলতেন ওই সমস্ত জাল রেজাল্ট।

মাত্র দুমাসে ৫০ জনের ভুয়ো মার্কশিট বানিয়ে দিয়েছে অভিযুক্ত। তাঁদের মধ্যে কিছুজন রয়েছেন চাকরিপ্রার্থী। বেসরকারি সংস্থায় বেশি নম্বরের ভুয়ো মার্কশিট দেখিয়ে চাকরি বাগিয়েছেন তাঁরা। গোপন সূত্রে জাল রেজাল্ট তৈরির খবর পেতেই কুলদ্বীপের দোকানে গোপন অভিযান চালান মেহসানা লোকাল ক্রাইম ব্রাঞ্চের আধিকারিকরা। ক্রেতা সেজে দোকানে হানা দেন তাঁরা। ভুয়ো মার্কশিট তৈরির দায়ে হাতেনাতে ধরা পরেন কুলদ্বীপ পারমার এবং তাঁর সহকারী।

ভারতীয় দণ্ডবিধির অধীনে ৪৬৫ (জালিয়াতি), ৪৬৮ (জালিয়াতি করে লোক ঠকানো) এবং ৪৭১ (আসল হিসাবে জাল নথি ব্যবহার করা) ধারায় দুই অভিযুক্তের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের হয়েছে বলে জানা গিয়েছে।