National Digital Health Mission: ‘ন্যাশনাল ডিজিটাল হেলথ মিশন’ কী, তাতে কী কী সুবিধা মিলবে?
ছবিটি প্রতীকী (Photo: pixabay)

নতুন দিল্লি, ১৫ অগাস্ট: স্বাধীনতা দিবসে লালকেল্লা থেকে ‘ন্যাশনাল ডিজিটাল হেলথ মিশন’ (National Digital Health Mission) শুরুর কথা ঘোষণা করলেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি (Prime Minister Narendra Modi)। তিনি বলেন, ৭৪ তম স্বাধীনতা দিবসেই ‘ন্যাশনাল ডিজিটাল হেলথ মিশন’ চালু হচ্ছে। সেই মিশনের আওতায় সকল ভারতীয়কে 'হেলথ আইডি’ দেওয়া হবে। তিনি জানান, 'হেলথ আইডি’-তে সংশ্লিষ্ট ব্যক্তি বা মহিলার প্রতিটি শারীরিক পরীক্ষা, প্রতিটি অসুখ, কখন কী শরীর খারাপ হয়েছিল, কী রিপোর্ট এসেছিল সেই সংক্রান্ত যাবতীয় তথ্য থাকবে। আয়ুষ্মান ভারতের মতো সরকারের আরেকটি প্রধান উদ্যোগ হতে চলেছে এটি।

মোদির দাবি, নয়া পদক্ষেপের ফলে হাসপাতালে ভরতি প্রক্রিয়া, টাকা দেওয়ার মতো বিষয়গুলিও সহজ হবে। তিনি বলেন, "অ্যাপয়েন্টমেন্ট নেওয়া হোক, টাকা দেওয়া হোক বা (রেজিস্ট্রেশন) স্লিপ দেওয়ার জন্য লাইনে দাঁড়ানো হোক, স্বাস্থ্যক্ষেত্রে বিভিন্ন সমস্যা সমাধানের জন্য প্রযুক্তির ব্যবহার করা হবে।" আরও পড়ুন: Narendra Modi on Independence Day 2020: করোনার টিকা নিয়ে বড় ঘোষণা, দেশে তিনটি ভ্যাকসিন তৈরির কাজ চলছে, জানালেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি

প্রোগ্রামটির ব্লুপ্রিন্ট গত বছর শুরু হয়েছিল। বিস্তৃত্ব ডেটা এবং পরিষেবার মাধ্যমে একটি দক্ষ এবং সাশ্রয়ী স্বাস্থ্য পরিষেবা দেওয়া এই উদ্যোগের মূল লক্ষ্য। এই মিশনের মূল বৈশিষ্ট্যটি হল প্রযুক্তির অংশ - এটি সবার জন্য উচ্চমানের স্বাস্থ্যসেবা দেওয়ার জন্য উন্মুক্ত ডিজিটাল সিস্টেম। এটি একটি ইকোসিস্টেম তৈরি করতে বিভিন্ন ডিজিটাল স্বাস্থ্য পরিষেবাকে একত্রিত করবে, যা বিদ্যমান স্বাস্থ্য তথ্য ব্যবস্থাকে একীভূত করতে পারে। কেন্দ্রীয় সরকার বলেছে যে এটি ব্যক্তিগত তথ্যের সুরক্ষা এবং গোপনীয়তা বজায় রাখবে।

দেশের প্রতিটি ব্যক্তি একটি ডিজিটাল স্বাস্থ্য আইডি পাবেন। যা মূলত তাঁর সমস্ত স্বাস্থ্য রেকর্ডের একটি ডিজিটাল ফর্ম্যাট, যা সারা দেশের চিকিৎসকদের রেজিস্ট্রি এবং স্বাস্থ্য পরিষেবার সঙ্গে লিঙ্ক থাকবে। প্ল্যাটফর্মটি স্বাস্থ্যসেবা সরবরাহের দক্ষতা, কার্যকারিতা এবং স্বচ্ছতার উন্নতি করার পরিকল্পনাতেই করা হয়েছে। স্বাস্থ্য আইডি ওয়েবসাইটের একটি মোবাইল অ্যাপ্লিকেশনের আকারে হবে।