RBI On Currency Notes: টাকার হাত ধরে ব্যাকটেরিয়ার পাশাপাশি বাড়িতে ঢুকছে করোনাভাইরাসও, ইঙ্গিত রিজার্ভ ব্যাংকের
টাকার প্রতীকী ছবি (Photo Credits: IANS)

মুম্বই, ৫ অক্টোবর: সবরকম ভাইরাস ও ব্যাকটেরিয়া বহনকারীর ভূমিকা নিচ্ছে টাকা (Currency Notes)। এই তালিকায় থাকতে পরে করোনাভাইরাসও। রিজার্ভ ব্যাংক অফ ইন্ডিয়া এমনই ইঙ্গিত দিয়েছে বলে রবিবার জানালো কনফেডারেশন অফ অল ইন্ডিয়া ট্রেডার্স। ট্রেডার্স কনফেডারেশনের তরফে এই বিষয়টি জানিয়ে গত মার্চেই অর্থমন্ত্রী নির্মলা সীতারমণকে চিঠিও দেওয়া হয়েছিল। বিষয়টি নিয়ে যাতে স্পষ্ট কোনও নির্দেশিকা জারি হয়। তবে অর্থমন্ত্রক সেই চিঠির উত্তর দেয়নি। বরং চিঠিটিকে রিজার্ভ ব্যাংকের কাছে ফরওয়ার্ড করা হয়। এতদিন পর এই অক্টোবরে এসে অর্থমন্ত্রক কনফেডারেশন অফ অল ইন্ডিয়া ট্রেডার্সের চিঠির উত্তরে জানালো, আমরা বিষয়টি রিজার্ভ ব্যাংককে জানিয়েছি যাতে পরিষ্কার মুদ্রানীতি চালু করা যায়। আরও পড়ুন-Coronavirus Cases In India: লাখের গণ্ডী টপকে গেল ভারতে করোনার বলি, মোট আক্রান্ত ৬৬ লাখেরও বেশি

যাতে বাজারে রোলিং হয়ে আসা নোট যেন আরবিআই-এর হাতে এলে তা পরীক্ষা করে দেখা হয় আদৌ দ্বিতীয়বার ব্যবহারের উপযোগী কি না। যদি তা পরিচ্ছন্ন না থাকে তাহলে যেন সেসব নোয় নষ্ট করে দেওয়া হয়। এরপর আরবিআই-এর তরফে জনসাধারণের কাছে আবেদন রাখা হয় যে সংক্রমণ এড়াতে সবাই যেন এসময় ডিজিটাল লেনদেনের উপরেই ভরসা রাখে যেমন NEFT, IMPS, UPI এবং BBPS-এর মাধ্যমেই টাকার আদান প্রদান করে। যতটা পারা যায় যেন মুদ্রার ব্যবহার এড়াতে হবে।

টাকা যেহেতু সবসময় হাতে হাতে ঘুরছে সেহেতু সংক্রমণ ছড়ানোর মাধ্যম হিসেবে সবথেকে বড় ভূমিকা নিতে পারে। এই প্রসঙ্গে কনফেডারেশন অফ অল ইন্ডিয়া ট্রেডার্স জাতীয় সভাপতি বিসি ভারতিয়া ও সাধারণ সম্পাদক প্রবীণ খান্ডেলওয়াল বলেছেন, টাকার মাধ্যমে যে ভাইরাস ছড়াতে পারে তানিয়ে হ্যাঁ বা না কোনওটাই বলেনি আরবিআই। তাই কনফেডারেশন অফ অল ইন্ডিয়া ট্রেডার্সের তরফে নির্মলা সীতারমণকে অনুরোধ করা হয়েছে যে এই মর্মে যেন দেশের সমস্ত ক্রেতা ও বিক্রেতাকে ডিজিটাল লেনদেনের উপরে নির্ভর করার নির্দেশিকা দেওয়া হয়। যিনি ডিজিটাল পেমেন্ট করবেন তাঁর জন্য ইনটেনসিভের ব্যবস্থা থাকবে।