Gujrat: শাক দিয়ে মাছ ঢাকা! ট্রাম্প সফর পথে বস্তি ঢাকতে তৈরি হচ্ছে ছ’ফুটের প্রাচীর!
ট্রাম্প সফর পথে বস্তি ঢাকতে তৈরি হচ্ছে ছ’ফুটের প্রাচীর (Photo: wikimedia commons)

গান্ধীনগর, ১৪ ফেব্রুয়ারি: এখনও পর্যন্ত খবর আগামী ২৪ ফেব্রুয়ারি মার্কিন প্রেসিডেন্ট (US President) আসছেন ভারত সফরে। তাঁকে স্বাগত জানাতে আমদাবাদ (Ahmedabad) বিমানবন্দরে স্বয়ং হাজির থাকবেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি (Narendra Modi)। এদিকে, মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের (Donald Trump) ভারত সফর নিয়ে আদাজল খেয়ে লেগেছে গুজরাতের সাউথ ব্লক। বিমানবন্দর থেকে সাবরমতী আশ্রম পর্যন্ত রাস্তার দু’ধারে যাতে লোকারণ্য থাকে তা নিশ্চিত করার জন্য দলীয় স্তরে তৎপরতা শুরু হয়ে গিয়েছে। শুধু তাই নয় জানা গিয়েছে, আমদাবাদ বিমানবন্দর থেকে ইন্দিরা সেতু পর্যন্ত আধ কিলোমিটার রাস্তার দু’পাশে ছ-সাত ফুট উঁচু প্রাচীর বানানো শুরু হয়েছে। যাতে রাস্তার পাশে বস্তি ও ঝুপড়ি মার্কিন প্রেসিডেন্টের ‘দৃশ্য দূষণ’ না ঘটাতে পারে।

এই রাস্তার ধারেই দেব সারণ বস্তি এলাকা। প্রায় ৫০০টি কাঁচা বাড়ি রয়েছে সেখানে। আড়াই হাজার মানুষের বাস। প্রাচীর তোলা হয়ে গেলে রাস্তার ধারে খেজুর গাছের সারিও বসানো হবে বলে খবর। ২০১৪-এ চিনের প্রেসিডেন্ট শি জিংপিং (Xi Jinping) এবং ২০১৭-এ জাপানের প্রধানমন্ত্রী শিনজো আবে যখন গুজরাত গিয়েছিলেন, তখনও একই কায়দায় সৌন্দর্যায়ন হয়েছিল এই রাস্তার। ইন্ডিয়া টুডের খবর অনুযায়ী আজ মার্কিন ফার্স্ট লেডি মেলানিয়া ট্রাম্প টুইট করে জানিয়েছেন, ভারত সফরটি নিয়ে তিনি ‘উত্তেজিত।’ তাঁর কথায়, ‘‘আমদাবাদ ও নয়াদিল্লি সফরের দিকে তাকিয়ে রয়েছি। আমেরিকা ও ভারতের ঘনিষ্ঠ সম্পর্কের উদ্‌যাপন করার জন্যও উদগ্রীব।’’তবে কূটনীতিকদের মতে, দেখনদারির মোড়কে দ্বিপাক্ষিক সম্পর্কের অস্বস্তির জায়গাগুলিকে কতটা প্রশমিত করা যাবে তা বোঝা যাচ্ছে না। ট্রাম্পের ভারত সফরের আগে, আজ মার্কিন বিদেশসচিব মাইক পম্পেয়োকে চিঠি লিখেছেন চার শীর্ষ পর্যায়ের সেনেটর। আরও পড়ুন: Marriage Proposal On Google Maps: ‘তুমি কি আমায় বিয়ে করবে?’ জার্মান যুবকের বিয়ের প্রস্তাব গুগল ম্যাপে; ব্যাপারটা কী?

৩৭০ অনুচ্ছেদ প্রত্যাহারের ছ’মাস কেটে যাওয়ার পরেও সেখানে নেট-নিষেধাজ্ঞা না তোলা নিয়ে উদ্বেগ প্রকাশ করেছেন মার্কিন সেনেটরেরা। কাশ্মীরের রাজনৈতিক নেতাদের আটক রাখার বিষয়টিও আছে ওই চিঠিতে (Letter)। পাশাপাশি এনআরসি এবং সিএএ নিয়ে ভারত জুড়ে যে ক্ষোভ ও আন্দোলনের পরিস্থিতি— সেটিরও উল্লেখ করেছেন তাঁরা।