General Bipin Rawat Biography: বিপিন রাওয়াত-একজন স্পষ্টভাষী, যিনি ভারতের প্রথম সিডিএস ছিলেন
General Bipin Rawat

হেলিকপ্টার দুর্ঘটনায় (Military Helicopter Crash) সিডিএস (Chief of Defence Staff) বিপিন রাওয়াত (General Bipin Rawat)-সহ ১৩ জনের মৃত্যু হয়েছে, জানাল বায়ুসেনা (IAF)। বায়ুসেনা টুইটারে বলেছে, গভীর দুঃখের সঙ্গে এটা এখন নিশ্চিত করা হচ্ছে যে জেনারেল বিপিন রাওয়াত, তাঁর স্ত্রী মধুলিকা রাওয়াত এবং বোর্ডে থাকা আরও ১১ জন দুর্ভাগ্যজনক দুর্ঘটনায় মারা গেছেন। গ্রুপ ক্যাপ্টেন বরুণ সিং এসসি বর্তমানে ওয়েলিংটনের মিলিটারি হাসপাতালে চিকিৎসাধীন। আজ তামিলনাড়ুর কুন্নুরে ভেঙে পড়ে বায়ুসেনার হেলিকপ্টার। চিফ অফ ডিফেন্স স্টাফ বিপিন রাওয়াত-সহ ১৪ জন এমআই-১৭ভি৫ হেলিকপ্টারে ছিলেন।

উত্তরখণ্ডের পৌরি গাড়ওয়াল জেলায় ১৯৫৮ সালে জন্মগ্রহণ করেন বিপিন রাওয়াত। তাঁর বাবা লক্ষণ সিং রাওয়াতও সেনাবাহিনীর জেনারেল ছিলেন। রাওয়াত লেখাপড়া করেন দেরাদুনের ক্যামব্রিয়ান হল, সিমলার সেন্ট এডওয়ার্ড স্কুল এবং অবশেষে ন্যাশনাল ডিফেন্স অ্যাকাডেমিতে। তিনি তামিলনাড়ুর 'ডিফেন্স সার্ভিস স্টাফ কলেজ' থেকে স্টাফ কোর্স এবং যুক্তরাষ্ট্রের ফোর্ট লেভেনওয়ার্থ থেকে আরও উচ্চশিক্ষা লাভ করেন। এছাড়া তিনি তামিলনাড়ুর মাদ্রাজ বিশ্ববিদ্যালয় থেকে প্রতিরক্ষাবিদ্যায় এমফিল করেন।

১৯৭৮ সালের ১৬ ডিসেম্বর গোর্খা রাইফেলসে যোগ দেন রাওয়াত। সেই নিজেকে ধীরে ধীরে শিখরে নিয়ে যান তিনি। তাঁর সব ধরনের যুদ্ধ পরিচালনার অভিজ্ঞতা ছিল রাওয়াতের, ১০ বছর জঙ্গি বিরোধী অভিযানে নেতৃত্ব দিয়েছেন। চার দশকের ক্যারিয়ারে রাওয়াত সেনা বাহিনীর নানা পদে কাজ করছেন। তিনি রাষ্ট্রসংঘের শান্তিরক্ষা বাহিনীর সদস্যও ছিলেন। জেনারেল রাওয়াত কঙ্গো প্রজাতন্ত্রে বিভিন্ন দেশের সেনাবাহিনীর একটি ব্রিগেডেরও নেতৃত্ব দিয়েছেন। সেনাবাহিনীর ওয়েস্টার্ন কমান্ডে একাধিক সামরিক অভিযান পরিচালনার অভিজ্ঞতা রয়েছে তাঁর। সেনাপ্রধান হিসেবে নিয়োগ পাওয়ার আগে তিনি সেনাবাহিনীর ভাইস চিফ হিসেবে দায়িত্ব পালন করেছেন। আরও পড়ুন: IAF Mi-17V5 Helicopter Crash: হেলিকপ্টার দুর্ঘটনায় সিডিএস বিপিন রাওয়াত-সহ ১৩ জনের মৃত্যু, জানাল বায়ুসেনা

২০১৬ সালের ১৭ ডিসেম্বর তিনি দেশের ২৭তম সেনা প্রধান হিসেবে দায়িত্ব নেন। জেনারেল দলবীর সিং সুহাগের স্থলাভিষিক্ত হন তিনি। বিপিন রাওয়াতকে দেশের তিন প্রতিরক্ষা বাহিনীর প্রধান অর্থাৎ টিফ অফ ডিফেন্স স্টাফ পদে নিয়োগ করা হয় ২০২০ সালের ১ জানুয়ারি। সেই পদেই তিনি এতদিন ছিলেন। নিরাপত্তা সংক্রান্ত বিষয়ে সরাসরি প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে যোগাযোগ করেন তিনি। সেনাবাহিনী, নৌবাহিনী ও বিমানবাহিনীর প্রধানরা তাঁকে কাজের ব্যাপারে রিপোর্ট করতেন।

দীর্ঘ কর্মজীবনে জেনারেল রাওয়াত বেশ কয়েকটি পুরস্কার পেয়েছেন। তার মধ্যে রয়েছে পরম বিশিষ্ট সেবা পদক, উত্তম যুদ্ধ সেবা পদক, অতি বিশিষ্ট সেবা পদক, যুদ্ধ সেবা পদক, সেনা পদক ও বিশেষ সেবা পদক। রাওয়াতকে ইন্ডিয়ান মিলিটারি অ্যাকাডেমিতে 'সোর্ড অফ অনার' দেওয়া হয়।