Hyderabad Shocker: বিয়ের কার্ডে নাম নেই, সেই বিবাদে পরিবারের চারজনকে ছুরিকাঘাত
প্রতীকি ছবি

হায়দরাবাদ, ২১ জুন: বিয়ের কার্ডে (Wedding card) নাম থাকা নিয়ে পরিবারের দুই ভাইয়ের মধ্যে রক্তাক্ত বিবাদ। যার জেরে ছুরির আঘাতে পরিবারের চারজন মারাত্মক জখম হয়ে হাসপাতালে ভর্তি। ঘটানাটি ঘটেছে চারমিনারের শহর হায়দরাবাদের (Hyderabad) তুকারাম গেট অঞ্চলে। এই ঘটনার পিছনে দুই মূল অপরাধি বড় ভাই শেখর (২৪) ও ছোট ভাই সরভেশ (২০)-কে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। আরও পড়ুন: বিয়ের আগে পাত্রীকে হেনস্থা, পরে রাশি না মেলার অজুহাতে বিয়ে বাতিল 

পুলিশ জানায়, পরিবারের দুই আত্মীয়ের মধ্যে বিয়ের আমন্ত্রণপত্র নিয়ে বিবাদ শুরু হয়। এরপর বিবাদ মেটাতে পুরো পরিবার আলোচনায় বসে। বিয়ের (Marriage) আমন্ত্রণ পত্রে পরিবারের সব বড় সদস্যদের নাম ছিল। কিন্তু শেখরের বাবার নাম বাদ পড়ায় সে রেগে যায়। সেই পারিবারিক বৈঠকে শেখর প্রথম থেকেই অশ্রাব্য কথা ব্যবহার করতে থাকে। যার জেরে সরভেশ ক্ষিপ্ত হয়। বাড়ির বড়রা তাদের ঝগড়া কিছুতেই থামাতে পারছিল না।

দুই ভাইয়ের শ্বশুরাবাড়ির লোকেরাও এসেছিলেন বিবাদ মেটাতে। কিন্তু বিবাদ মেটানোর মিটিংয়ে, এরপর শুরু হয় হাতাহাতি। সেখান থেকে ছুরি দিয়ে দুই ভাই একে অপরকে আঘাত করতে যায়। সেটা থামাতে গেলে পরিবারের আরও সদস্যরা ছুরির আঘাতে মাটিতে লুটিয়ে পড়েন। কারও বুকে, কারও পেটে ছুরির আঘাত লাগে। যে বিয়ের কার্ড নাম না থাকা নিয়ে বিবাদ, সেই বিয়ের কার্ডগুলো রক্তের দাগে ভেসে যায়। শেখর ও সরভেশ এরপর ঘটনাস্থল থেকেই পালিয়ে যায়। পুলিশ অবশ্য দুই ভাইকেই পরে ধরে ফেলে।