Anil Vij Health Update: করোনায় আশঙ্কাজনক হরিয়ানার স্বাস্থ্যমন্ত্রী অনিল ভিজ, ভর্তি মেদান্ত হাসপাতালে
অনিল ভিজ (Photo Credits: ANI)

নতুন দিল্লি, ১৬ ডিসেম্বর: কোভিড প্রতিষেধক কোভ্যাক্সিনের মানব শরীরে তৃতীয় পরীক্ষামূলক প্রয়োগে স্বেচ্ছাসেবক হয়েছিলেন হরিয়ানার স্বাস্থ্যমন্ত্রী অনিল ভিজ (Anil Vij)। পরে তিনিই করোনায় আক্রান্ত হন। এই মুহূর্তে মারণ রোগের সঙ্গে লড়তে লড়তে তাঁর শারীরিক পরিস্থিতির অবনতি হলে মঙ্গলবার প্রবীণ বিজেপি নেতাকে গুরুগ্রামের মেদান্ত হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। মেদান্ত হাসপাতালের ইন্টারন্যাশনাল মেডিসিন ডিপার্টমেন্টের ডিরেক্টর ডাক্তার সুশীলা কাটারিয়ার অধীনে চিকিৎসাধীন রয়েছেন অনিল ভিজ। সংবাদ সংস্থা আইএএনএস সূত্রের খবর, ফুসফুসের সংক্রমণে ভুগছেন হরিয়ানার স্বাস্থ্যমন্ত্রী। এতদিন রোহতকের পোস্টগ্রাজুয়েট ইনস্টিটিউট অফ মেডিক্যাল সায়েন্সে চিকিৎসাধীন ছিলেন তিনি। সেখানে তাঁর শারীরিক পরিস্থিতি আশঙ্কাজনক হয়ে পড়ায় মঙ্গলবার সন্ধ্যায় মেদান্ত হাসপাতালে স্থানান্তর করা হয়।

অনিল ভিজ গত শনিবার রোহতকের ওই হাসপাতালে ভর্তি হয়েছিলেন। সেখানে তাঁর কনভ্লাসেন্টস প্লাজমা থেরাপি করা হয়। ওই মেডিক্যাল ইনস্টিটিউটের তরফে জানানো হয়েছে। কোভিড সংক্রান্ত জটিলতার পাশাপাশি ভাইরাল নিউমোনিয়ায় আক্রান্ত অনিল ভিজ। সেখানে তাঁরা স্বাস্থ্য কোনওরকম উন্নতি দেখতে না পেয়ে পরিবারের লোকজন একপ্রকার জোর করেই বেসরকারি হাসপাতালে মেদান্তে স্থানান্তরের ব্যবস্থা করেন। এসবের আগে তিনি আম্বালার সিভিল হাসপাতালে চিকিৎসাধীন ছিলেন। গত মাসেই হায়দরাবাদের ভারত বায়োটেকের তৈরি করোনা প্রতিষেধক কোভ্যাক্সিনের দুটি ডোজ নিয়েছিলেন স্বাস্থ্যমন্ত্রী। এরপরই গত ৫ ডিসেম্বর তিনি কোভিডে আক্রান্ত হন। গত ২০ নভেম্বর আম্বালা ক্যান্টনমেন্টের সিভিল হাসপাতালে কোভ্যাক্সিনের ডোজ নেওয়ার জন্য ভর্তি হয়েছিলেন অনিল ভিজ। আরও পড়ুন-Mamata Banerjee: ‘১০ বছর ধরে সরকারের থেকে সবটা খেয়ে ভোটের সময় এর ওর সঙ্গে বোঁচকা বাঁধলে বরদাস্ত করব না’, মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়

টিকা নেওয়ার কয়েকিদনের মধ্যেই করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন অনিল ভিজ। তারপরেই কোভ্যাক্সিনের নিরাপত্তা প্রশ্নের মুখে পড়েছে। ২৮ দিনের ব্যবধানে কোভ্যাক্সিনের দুটি ডোজ নিতে হবে। এমনই বলা হয়। দুটি ডোজ নেওয়ার দু’সপ্তাহ পর থেকেই স্বেচ্ছাসেবকের রক্ষকের ভূমিকা নেবে কোভ্যাক্সিন। এদিকে অনিল ভিজ প্রথম ডোজ নেওয়ার ১৫ দিনের মধ্যেই করোনায় আক্রান্ত হন। মন্ত্রকের তরফে এক বিবৃতিতে জানানো হয়েছে, প্রতিষেধকের দ্বিতীয় ডোজ নেওয়ার পরে বেশ কয়েকদিন কাটলে তারপর শরীরে অ্যান্টিবডি তৈরি হয়। এটা দুই ডোজের ভ্যাক্সিন। মন্ত্রী শুধু এক ডোজ নিতে পেরেছেন।