Bareilly: বিয়ে পিছিয়ে যাওয়ার দু:খে তিন তলা থেকে ঝাঁপ ১৯ বছরের মেয়ের

বারেলী, ৭ জুন: বিয়ে পিছিয়ে যাওয়ার বেদনায় আত্মহত্যার জন্য একেবারে মরণঝাঁপ (Jumps From Second Floor)। ১৯ বছরের মেয়েটা নিজের বিয়ে পিছিয়ে যাওয়ার খবরটা শুনে এতই কষ্ট পায় যে বাড়ির তিনতলার ব্যালকনি থেকে সোজা মরণঝাঁপ দেয়। তবে ভাগ্যক্রমে কোনওক্রমে বেঁচে যায় সে। বিয়ে কিন্তু বাতিল হয়নি, শুধুই পিছিয়ে গিয়েছিল। উত্তর প্রদেশের বারেলীর (Bareilly) প্রেমনগর (Prem Nagar) এলাকায় এমন ঘটনাই ঘটল। আরও পড়ুন:  হু হু করে বাড়ছে পেট্রল-ডিজেলের দাম, জীবন দুর্বিষহ সাধারণ মানুষের

মেয়েটির পরিবারের অভিযোগ, ছেলের বাড়ি থেকে মোটা টাকা পণ হিসেবে দাবি করা হয়েছিল। তাই পণ জোগাড় করার জন্য সময় চাইতেই পিছিয়ে গিয়েছিল বিয়ে। পাত্রপক্ষের অবশ্য দাবি, পণের কোনও বিষয় নয়, ছেলের বয়স এখনও ২১ হয়নি। তাই বয়সজনিত কারণের নিয়ম মানতেই দুই পরিবারের সম্মতিতে পিছিয়ে দেওয়া হয়েছিল বিয়ে। পুলিশ এই বিষয়ে জিজ্ঞাসাবাদ করছে। পুলিশ জানায়, পণ সমস্যায় নয়, ছেলেটির বয়সজনিত সমস্যার কারণে বিয়েটা কয়েক মাস পিছিয়ে দেওয়া হয়েছিল। সেটাই মেনে নিতে না পেরে মেয়েটি এই কাজ করে বসে।

মরণঝাঁপের পর মেয়েটিকে আশঙ্কাজনক অবস্থায় স্থানীয় হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। তাঁর দেহের বিভিন্ন অংশে বড় চোট লেগেছে। তবে এখন তার শারীরিক অবস্থা স্থিতিশীল।