যুদ্ধ করতে এলে মেরে নাক ফাটিয়ে দেব, কার্গিল দিবসে পাকিস্তানকে হুমকি বিপিন রাওয়াতের
জেনারেল বিপিন রাওয়াত (Photo Credit: IANS)

দিল্লি, ২৬ জুলাই:  ফের ভারতের বিরুদ্ধে নাশকতার ষড়যন্ত্র করলে মেরে নাক ফাটিয়ে দেব। কার্গিল বিজয় দিবসের দিন এভাবেই পাক সেনাকে হুমকি দিলেন ভারতের সেনাপ্রধান জেনারেল বিপিন রাওয়াত। তিনি বলেন পাকিস্তান এবার হামলা করলেই পাল্টা দেওয়া হবে সঙ্গে সঙ্গে। জল, স্থল, আকাশ যে পথেই আসুক না কেন মেরে নাক ফাটিয়ে দেওয়ার কড়া দাওয়াই দিতে তৈরি ভারতীয় সেনা। সেনাপ্রধান বিপিন রাওয়াতের (Army chief General Bipin Rawat) কথায়, ‘‘এমনটা আর চলতে পারে না। সতর্ক করে দিচ্ছি! যে কোনও রকম দুঃসাহসিক অভিযানের কড়া জবাব দেওয়া হবে।’’ আরও পড়ুন-কার্গিল বিজয়ের ২০ বছর পূর্তি, সেনা জওয়ানদের ছবি শেয়ার করলেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি

এদিন সেনাপ্রধান বলেন, উরি বা পাঠানকোটের মতো সেনা ছাউনিতে জঙ্গি হানা, যুদ্ধবিরতি লঙ্ঘন করে পাক সেনার গোলাগুলি মোকাবিলা করার জন্য ভারতীয় সেনাবাহিনী ও তাদের হাতে থাকা অস্ত্রভাণ্ডার এখন অনেক উন্নত ও আধুনিক হয়েছে।ভারত আজ পরমাণু বিদ্যুৎচালিত আকুলা-ক্লাস ডুবোজাহাজ লিজ নেওয়ার জন্য রাশিয়ার সঙ্গে ৩.৩ বিলিয়ন ডলারের চুক্তি করেছে। আইএনএস অরিহন্ত ও আইএনএস চক্র-র পরে চক্র-৩ নামে এই সাবমেরিনও হাতে আসতে চলেছে। পাশাপাশি, নজরদারি উপগ্রহের মাধ্যমে শত্রু শিবিরের খুঁটিনাটিও থাকবে ভারতীয় জওয়ানদের নখদর্পণে। পুলওয়ামা পরবর্তী পরিস্থিতি বিবেচনা করে সেনার অভ্যন্তরীণ পরিকাঠামো, অস্ত্রভাণ্ডার-সহ যাবতীয় বিষয় খতিয়ে দেখে সেনার আধুনিকীকরণের সিদ্ধান্ত নিয়েছে কেন্দ্র। ঢেলে সাজানো হচ্ছে সেনা দপ্তরগুলিও। স্বাভাবিকভাবেই জঙ্গিদের কোনওরকম বেয়াদবি আর সহ্য করা হবে না বরংনাশকতার পাল্টা হিসেবে যা হবে তা অতি ভয়ঙ্কর।

কার্গিল দিবসের ২০ বছর উদযাপন করছে ভারতীয় সেনা। ১৯৯৯ সালের সেই যুদ্ধে ভারতীয় জওয়ানদের রক্তে ভিজেছিল দেশ। তবে তিন মাসের মধ্যে মুশকো, দ্রাস, কাকসার, বাতালিক, কার্গিল সেক্টর থেকে পাক হানাদারদের তাড়িয়ে ছেড়েছিলেন বীর জওয়ানেরা। সেদিনের কথা মনে করে সেনাপ্রধান বলেন, পাক নাশকতার ইতি হয়নি এখনও। বরং, সীমান্তের ও-পারে যুদ্ধ-মনোভাব নিয়ে প্রতিদিনই ভারতে হামলা চালানোর প্রস্তুতি নিচ্ছে পাকিস্তান (Pakistan)। সীমান্তবর্তী গ্রামগুলিতে পাকিস্তানি সেনার ছোঁড়া গোলা উড়ে এসে পড়ছে অহরহ।