Arnab Goswami: আলিবাগ কোর্টের নির্দেশে ১৮ নভেম্বর পর্যন্ত বিচারবিভাগীয় হেফাজতে অর্ণব গোস্বামী
পুলিশি হেফাজতে অর্ণব গোস্বামী(Photo Credits: PTI)

রায়গড়, ৫ নভেম্বর: বুধবার মহারাষ্ট্রের আলিবাগ কোর্ট রিপাবলিক টিভির ম্যানেজিং ডিরেক্টর তথা চিফ এডিটর অর্ণব গোস্বামীকে (Arnab Goswami) ১৪ দিনের জন্য বিচারবিভাগীয় হেফাজতে পাঠিয়েছে। আগামী ১৮ নভেম্বর পর্যন্ত বিচারাধীন বন্দি হিসেবেই থাকতে হবে তাঁকে। রায়গড় পুলিশ অর্ণব গোস্বামীকে টানা ৬ ঘণ্টার ম্যারাথন জেরা করেছে। তবে আলিবাগ কোর্টের চিফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট কিছুতেই পুলিশি হেফাজতের সম্মতি দেননি। স্থপতি অনভয় নায়েক ও তাঁর মা কুমুদ নায়েকের আত্মহত্যার প্ররোচনা দেওয়ার অভিযোগে বুধবার সাতসকালে মহারাষ্ট্র পুলিশের রায়গড় ইউনিট অর্ণব গোস্বামীকে তাঁর বাড়ি থেকে প্রথমে আটক ও পরে গ্রেপ্তার করে। ২০১৮-র ৫ মে আলিবাগ বাংলোতে ঝুলন্ত অবস্থায় মা ও ছেলের দেহ উদ্ধার হয়েছিল।

মৃতদেহের কাছ থেকেই উদ্ধার হয়েছিল সুইসাইড নোট। তাতে স্পষ্ট লেখা ছিল, দেনার দায়ে ডুবে আছি। এভাবে বাঁচা যায় না। তাই আত্মহননের পথ বেছে নিলাম। অর্ণব গোস্বামীর রিপাবলিক টিভির কাছেই পাই ৮৩ লক্ষ টাকা। এছাড়াও আরও দুটি সংস্থার কাছেও রয়েছে মোটা অঙ্কের অর্থ পাওনা। সবমিলিয়ে অর্ণব গোস্বামী, ফিরোজ শেখ ও নীতীশ সারদা তাঁকে দিয়ে কাজ করিয়ে নিয়ে বকেয়া ৫.৪০ কোটি টাকা আর দেননি। সেই আর্থিক চাপেই তিনি ও তাঁর মা এই চরম সিদ্ধান্ত নিতে বাধ্য হলেন। চলতি বছরের মে মাসে মহারাষ্ট্রের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অনিল দেশমুখ ঘোষণা করেছিলেন, ডিজাইনারের মেয়ে অদন্যা নাইকের আর্জির প্রেক্ষিতে তিনি নতুন করে এই মামলার তদন্তের নির্দেশ দিয়েছেন। এদিকে, মুম্বই পুলিশের মহিলা অফিসারকে নিগ্রহের অভিযোগে রিপাবলিক টিভির প্রধান সম্পাদক অর্ণব গোস্বামীর বিরুদ্ধে বুধবার সন্ধ্যায় আরও একটি এফআইআর দায়ের করা হয়েছে। এদিন অর্ণব গোস্বামীকে গ্রেফতারে সাতসকালে তাঁর মুম্বইয়ের বাড়িতে হানা দিয়েছিল পুলিশের একটি টিম। অভিযোগ, সেসময় ওই টিমের মহিলা অফিসারকে হেনস্থা করেন অর্ণব। আরও পড়ুন-Fir Against Arnab Goswami: মহিলা পুলিশকর্মীকে নিগ্রহের অভিযোগ, অর্ণব গোস্বামীর নামে নতুন এফআইআর

বুধবার সকালে অর্ণবের গ্রেপ্তারিকে ঘিরে দেশজুড়ে হইচই পড়ে যায়। সংবাদমাধ্যমের ভিডিও ফুটেজে দেখা যায়, অর্ণবকে ধাক্কা দিয়ে পুলিশ ভ্যানে তোলা হচ্ছে। অর্ণবের পাল্টা অভিযোগ, বাড়ির বাইরে বের করে আনার আগে পুলিশই তাঁকে নিগ্রহ করেছে। কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী এই গ্রেপ্তারির নিন্দা করে বলেন, ''এটি 'ফ্রি প্রেস' উপর হামলা। আমরা এর বিরোধিতা করব।''