Bihar: কোয়ারেন্টাইন সেন্টারে ধর্ষণ কিশোরী, গ্রেফতার হাসপাতালের নিরাপত্তারক্ষী
ধর্ষণ/ প্রতীকী ছবি (Photo Credit: File Photo)

পাটনা, ১৬ জুলাই: কোভিড-১৯ কোয়ারেন্টাইন সেন্টারে ১৫ বছরের কিশোরী ধর্ষণ। ঘটনাটি ঘটেছে পাটনার মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে। রেলস্টেশন থেকে উদ্ধার করা হয়েছিল ওই কিশোরীকে। পুলিশ সূত্রে খবর, অভিযুক্ত ব্যক্তির নাম মাহেশ। বুধবার রাতে তাকে গ্রেফতার করে পুলিশ। হাসপাতালের নিরাপত্তারক্ষীর কাজ করত অভিযুক্ত। পসকো আইনের অধীনে অভিযুক্তকে গ্রেফতার করা হয়েছে।

জানা গিয়েছে মেয়েটির বাড়ি নালন্দা জেলায়। এক সপ্তাহ আগেই বাড়ি থেকে পালিয়ে আসে মেয়েটি। এরপর পাটনার প্রত্যন্ত এলাকার বারহ রেলওয়ে স্টেশনে পৌঁছয় মেয়েটি। সেখান থেকে কলকাতায় বাবার কাছে যাওয়ার কথা ছিল তার। মেয়েটির বাবা কলকাতায় দিনমজুরের কাজ করেন। তবে বাবার কাছে আর যাওয়া হয়নি মেয়ের। বারহ স্টেশন থেকেই মেয়েটিকে নিয়ে যাওয়া হয় করোনা কোয়ারেন্টাইন সেন্টারে।

৮ জুলাই রাতে হাসপাতালে পৌঁছয় মেয়েটি। সেই হাসপাতালের শৌচালয়তে মেয়েটিকে ধর্ষণ করা হয়েছে বলে অভিযোগ। ঘটনাটি যাতে চেপে যায় মেয়েটি, সেই কারণে অভিযুক্ত তাকে হুমকি দেয় বলেও জানা গেছে। চিকিৎসকেরা জানিয়েছেন, মেয়েটির করোনা পরীক্ষা নেগেটিভ এসেছে। তার চিকিৎসার জন্য ৬ ডাক্তারের একটি মেডিকেল বোর্ড গঠন করা হয়। সেই মেডিকেল বোর্ডের অধীনেই তার চিকিৎসা করে আপাতত শেল্টার হোমে পাঠিয়ে দেওয়ার বন্দোবস্ত চলছে।