Nikhil Jain vs Nusrat Jahan: দাম্পত্যের বিড়ম্বনা, নুসরতের কাছে বিচ্ছেদ চেয়ে নোটিস নিখিলের
নুসরত, নিখিল। (Photo Credit: Facebook)

রূপকথার বিয়ে নিয়ে এক সময় আলোচনা কম হয়নি। তখন ২০১৯। লোকসভা নির্বাচনে জিতে বিয়ের পিঁড়িতে বসতে তৃণমূলের সাংসদ অভিনেত্রী নুসরত জাহান (Nusrat Jahan) উড়ে গিয়েছিলেন তুরস্কের বোদরুমে। এরপর একটা বছর ধরে প্রচারের আলোতেই থেকেছেন স্বামী নিখিল জৈন ও স্ত্রী নুসরত জাহান। বিয়ের পর শাখা সিঁদুরে রঞ্জিত হয়েই সংসদে শপথ নিতে পৌঁছে যান নুসরত। তারপর কলকাতায় রাজকীয় রিসেপশন। ইসকনের রথে যোগ দেওয়া নিয়ে কট্টরবাদীদের রে রে করে ওঠা। কী নেই সেই তালিকায়। করোনাকাল কাটিয়ে ফের এসেছে নির্বাচন। এবার বিধানসভা ভোট। তার আগেভাগেই সাংসদ নুসরত জাহানের বৈবাহিক জীবনের যবনিকা পাতের সূচনা হয়ে গেল বলতে পারেন। শোনা যাচ্ছে স্ত্রীর কাছে বিবাহ বিচ্ছেদ চেয়েছেন নিখিল জৈন। আরও পড়ুন-Taimur Memes Flood Twitter: তৈমুরের জনপ্রিয়তা সংকটে, সইফ করিনার দ্বিতীয় সন্তান জন্মের পরেই নেটদুনিয়ায় কানাকানি

বেশ কিছুদিন ধরেই নিখিল ও নুসরতের দাম্পত্য সম্পর্কে চিড় ধরেছিল। আজমেঢ় শরীফে গেছেন অভিনেত্রী সেখানেও তাঁর পাশে দেখা যায় সতীর্থ অভইনেতা যশ দাশগুপ্তকে নিয়ে। প্রথমে শুটিংয়ের গুঞ্জন উঠলেও পরে দেখা যাচ্ছে রাজস্থানের বালিয়াড়িতে নুসরত ঘউরে বেড়াচ্ছেন সঙ্গে যশ। সেই ছবি ফ্যানপেজে পোস্ট হতেই কানাঘুষো শুরু হয়ে যায়। তাহলে কি নিখিল জৈন থেকে নুসরতের মন উঠে গেল? সে জায়গায় কি এখন যশই রাজা? এর উত্তরে নুসরত জাহান বলেছিলেন, যশের সঙ্গে সম্পর্ক থাকলে তা বিয়ের আগেই জানাতেন। প্রশ্ন যতই ফুৎকারে ওড়ান না কেন, স্বামী নিখিলে সঙ্গে কিন্তু নুসরত এখন থাকছেন না। এমনকী, সোশ্যাল মিডিয়ায় পরস্পর পরস্পরকে আনফলো করেছেন। প্রেমদিবসে তাৎপর্যপূর্ণ পোস্ট করেছিলেন নিখিল। নুসরতও কম যান না। তবে বরফ কিন্তু গলেনি।

শ্যালিকা নুজহত জাহানের সঙ্গে সুসম্পর্ক থাকলেও স্ত্রী নুসরতের মনের কাছাকাছি আর নিখিল জৈনকে খুঁজে পাওয়া যায় না। নুসরত বদলে গেলেও তিনি যে আগের মতোই আছেন সোশ্যাল মিডিয়ায় তার আভাস দিয়েছেন নিখিল। তবে লাভের লাভ কিছু হয়নি। দূরত্ব বেড়েই চলেছে। তবে দুজনের মধ্যে যাই ঘটুক না কেন প্রকাশ্যে কেউই এনিয়ে কাদা ছোঁড়াছুঁড়ি করেননি। নুসরত ব্যক্তিগত বিষয়কে ব্যক্তিগত রাখতে চেয়েছেন। নিখিলও স্ত্রীর ইচ্ছের সম্মান রেখে আনন্দ বাজার ডিজিটালকে জানিয়েছেন যা বলার পরে বলবেন। তবে রূপকথার বিয়ে যে একেবারে খাদের কিনারায় এসে দাঁড়িয়েছে তাতে কোনও সন্দেহ নেই।