Sushant Singh Rajput Death Case: 'বিশ্বাস করি আমি ন্যায়বিচার পাব', ভিডিয়োবার্তায় বললেন রিয়া চক্রবর্তী
Rhea Chakraborty, Sushant Singh Rajput (Photo Credits: Twitter)

সুশান্ত সিং রাজপুতের (Sushant Singh Rajput) মৃত্যু তদন্ত নতুন বাঁক নেওয়াতে এই প্রথম মুখ খুললেন অভিনেতা রিয়া চক্রবর্তী (Rhea Chakraborty)। সুশান্তের পরিবার তাঁর বিরুদ্ধে প্রতারণা ও হয়রানির অভিযোগ এনেছে। অভিযুক্ত অভিনেতা আজ তার নীরবতা ভেঙে জবাব দিয়েছেন। তাঁর আইনজীবী সতীশ মনেশিন্দের তরফে প্রকাশিত একটি ভিডিয়োতে রিয়া বলেছেন, "সত্য বিরাজ করবে।" চলতি সপ্তাহে সুশান্ত সিং রাজপুতের বাবা রিয়া চক্রবর্তীর বিরুদ্ধে বিহারের পটনায় এফআইআর দায়ের করেছিলেন। তিনি অভিযোগ করেছিলেন যে সুশান্তের ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্ট থেকে অর্থ সরিয়েছেন রিয়া। এছাড়া সুশান্তকে মানসিকভাবে হেনস্থাও করেছেন। সব অভিযোগের তদন্ত করছে বিহার পুলিশ। তদন্তে তারা মুম্বইও এসেছে।

আজ রিয়া হাত জোর করে ও চোখে জল নিয়ে এক ভিডিয়োবার্তায় বলেন, "ঈশ্বর এবং বিচার বিভাগের প্রতি আমার অগাধ বিশ্বাস আছে। আমি বিশ্বাস করি যে আমি ন্যায়বিচার পাব। বৈদ্যুতিন মিডিয়ায় আমার সম্পর্কে অনেক ভয়াবহ কথা বলা হলেও বিষয়টি নিয়ে আইনজীবীদের পরামর্শে মন্তব্য করা থেকে বিরত থাকি। যেহেতু সবই বিচারাধীন বিষয়।" তিনি আরও বলেন, ""সত্যমেব জয়তে, সত্য বিরাজ করবে।" আরও পড়ুন: Sushant Singh Rajput Case: রিয়ার বিরুদ্ধে বয়ান দিতে সুশান্তের পরিবার চাপ দিচ্ছে, মুম্বই পুলিশে অভিযোগ মৃত অভিনেতার বন্ধু সিদ্ধার্থ পিঠানির

রিয়ার একটি ভিডিয়ো সোশাল মিডিয়ায় ভাইরাল হচ্ছে। এই ভিডিয়োতে রিয়াকে বলতে শোনা যাচ্ছে যে, তাঁর বয়ফ্রেন্ড নিজেকে বড় গুন্ডা মনে করে। কিন্তু আসলে তিনিই বয়ফ্রেন্ডের রাশ নিজের হাতে রাখেন। রিয়ার এই ভিডিয়ো কবে ও কোথায় তোলা হয়েছিল, তা স্পষ্ট নয়।

সুশান্ত সিং রাজপুতের মৃত্যু তদন্তে এখনও পর্যন্ত ৪০ জনকে জিজ্ঞাসাবাদ করেছে মুম্বই পুলিশ। রিয়াকেও জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়েছে। রিয়ার অভিযোগ যে সুশান্ত সিং রাজপুত হতাশায় ভুগছিলেন এবং স্বজনপোষণের কারণে চলচ্চিত্র জগতে একঘরে হয়ে গেছিলেন। মৃত অভিনেতার পরিবার পটনায় মামলা দায়ের করার পরে বিহার পুলিশ সমান্তরাল তদন্ত শুরু করেছে। অন্যদিকে আর্থিক তছরুপের মামলা রুজু করেছে ইডি। রিয়া ছাড়াও তাঁর পরিজনদেরও অভিযুক্ত করা হয়েছে। উল্লেখ্য়, পটনায় রিয়ার বিরুদ্ধে যে এফআইআর দায়ের করে সুশান্তের বাবা কে কে সিং দাবি করেন, এক বছরে অভিনেতার ব্য়াঙ্ক অ্য়াকাউন্ট থেকে ১৫ কোটি টাকা গায়েব হয়েছে।