Taliban: মহিলারা মন্ত্রী হতে পারেন না, তাঁদের কাজ শুধু সন্তান জন্ম দেওয়া, দাবি তালিবানের
Taliban In Afghanistan (Photo Credit: Twitter)

কাবুল, ১০ সেপ্টেম্বর: মহিলাদের (Woman) কাজ শুধু সন্তান জন্ম দেওয়া। মন্ত্রিত্ব সামলানো তাঁদের কাজ নয়। এমনই মন্তব্য করল তালিবান। শুক্রবার এক সাংবাদিক সম্মেলনে হাজির হন তালিবান (Taliban)  মুখপাত্র সৈয়দ হাসিমি। সেখানে তিনি বলেন, সন্তান জন্ম দেওয়ার কাজে নিজেদের সীমাবদ্ধ করে ফেলা উচিত মহিলাদের। মন্ত্রিত্ব সামলানো তাঁদের কাজ নয়। শুধু তাই নয়, মহিলাদের পড়াশোনা এবং কর্মসক্ষেত্রে স্বাধীনতা কিংবা মন্ত্রিসভায় যোগের দাবিতে যাঁরা আন্দোলন করছেন, তাঁদের দেখে আফগানিস্তানের সব মেয়েদের বিচার করা যাবে না। প্রতিবাদকারী মহিলারা কখনও আফগানিস্তানের সমস্ত মহিলাদের উদাহরণ হতে পারেন না। এমন মন্তব্যও করতে শোনা যায় তালিবান মুখপাত্রকে।

হাসিমি আরও বলেন, মহিলারা মন্ত্রক সামলাতে পারেন না। মহিলাদের দায়িত্ব দেওয়া মানে তাঁদের কাধে কিছু চাপিয়ে দেওয়া, যার ভার তাঁরা বহন করতে অক্ষম। সন্তানের জন্ম দিয়ে, ইসলামির রীতিনীতি মেনে তাদের বড় করাই মহিলাদের একমাত্র কাজ। প্রতিবাদকারীদের দেখে আফগানিস্তানের সব মহিলাদের বিচার করা যাবে না বলেও ম্নত্বয করেন তালিবান মুখপাত্র।

মহিলাদের বিরুদ্ধে একের পর এক অশালীন মন্তব্য তালিবানের...

আরও পড়ুন:  Taliban: লাথি, ঘুঁষি, থাপ্পড়, কাবুলের রাস্তা থেকে সাংবাদিককে তুলে নিয়ে নির্মম অত্যাচার তালিবানের

গত ১৫ অগাস্ট কাবুল দখল করে তালিবান। কাবুল (Kabul) দখলের পর ৩১ অগাস্ট আফগানিস্তান ছাড়ে মার্কিন বাহিনী। ৩১ অগাস্ট মার্কিন সেনা কাবুল ছাড়ার পর আফগানিস্তানে (Afghanistan) নয়া সরকার গঠন করে তালিবান। মোল্লা মহম্মদ হাসান আখুন্দকে প্রধানমন্ত্রী করে গোটা মন্ত্রিসভা ঘোষণা করে তালিবান। নয়া তালিবান সরকারে কেন কোনও মহিলা নেই, সে বিষয়ে প্রতিবাদ শুরু করেন আফগান মহিলারা। প্রতিবাদকারীদের রাজপথ থেকে হঠাতে টিয়ার গ্যাস চালায় তালিবান। তাতেও কাজ না হওয়ায় শেষে শূণ্যে গুলি চালাতে দেখা যায় তালিবানকে।

এমনকী প্রতিবাদকারী মহিলাদের লাঠি দিয়ে মারধরও করতে দেখা যায় তালিবানকে। যে ছবি প্রকাশ্যে আসতেই গোটা বিশ্ব জুড়ে জোরদার সমালোচনা শুরু হয়ে যায়।