#SrilankaBlast: মুখ ফিরিয়েছেন অতিথিরা, সংকটে শ্রীলঙ্কার পর্যটন
পুলওয়ামা হামলার পর। (File pic)

৭ মে,২০১৯: যেন বারুদের স্তূপের উপর দাঁড়িয়ে আছে শ্রীলঙ্কা (Shrilanka)। একের পর এক বিস্ফোরণ। আর গুলিবর্ষণ যেন শেষই হচ্ছে না। জঙ্গি ধরতে হিমসিম খাচ্ছেন শ্রীলঙ্কার সেনাবাহিনী। পরিস্থিতি এতোটাই উদ্বেগজনক যে গোটা দেশে বোরখা নিষিদ্ধ করে দেওয়া হয়েছে। নিষেধাজ্ঞা জারি করা হয়েছে সোশ্যাল মিডিয়ার বিভিন্ন প্লাটফর্ম ব্যবহারেও। নাকা তল্লাশিতে জেরবার জনজীবন। এই পরিস্থিতিতেই সবচেয়ে খারাপ অবস্থা শ্রীলঙ্কার পর্যটন শিল্পের(Tourism)।

কারণ এই পর্যটনই শ্রীলঙ্কার অর্ধেক অর্থনীতি (Economy)ধরে রেখেছে। মশলা ছাড়াও শ্রীলঙ্কা অর্থনীতিতে লাভজনক যদি কিছু হয়ে থাকে সেটা পর্যটন। কিন্তু ইস্টার সানডের ধারাবাহিক বিস্ফোরণে একেরপর এক বড় হোটেলগুলিকেই টার্গেট করেছিল জঙ্গিরা। যাতে একাধিক পর্যটকের মৃত্যু হয়। এমনকী বিশ্বের বিভিন্ন প্রান্ত থেকে আসা বহু ধনী ব্যক্তি মারা গিয়েছেন এই জঙ্গি হামলার। স্বাভাবিক ভাবেই পর্যটকদের মধ্যে আতঙ্ক বাসা করে ফেলেছে। কিছুতেই তাঁরা ছুটি কাটানোর পারফেক্ট ডেস্টিনেশন হিসেবে শ্রীলঙ্কাকে বেছে নিতে পারছেন না।

জানা গিয়েছে বড় বড় হোটেল গুলির অধিকাংশ বুকিং বাতিল হয়ে গিয়েছে। আর নতুন করে কেউ শ্রীলঙ্কায় বেড়াতে আসার জন্য বুকিংও করছেন না। সবচেয়ে বেশি মার খেয়েছে কলম্বোর পর্যটন কেন্দ্রগুলি।