Nepal: নেপালের বিধানসভা ভবনের অদূরে মিলল সন্দেহজনক বস্তু, ঘটনাস্থলে বম্ব স্কোয়াড
প্রতীকী ছবি (Photo Credits: IANS)

সুদুরপশ্চিম, ২১ জুলাই: রামকে কেন্দ্র করে ভারত নেপালের (Nepal) মধ্যেকার সম্পর্ক দিনে দিনে উত্তপ্ত হয়ে উঠছে। এর মধ্যেই প্রাদেশিক বিধানসভা ভবনের কাছে মিলল সন্দেহজনক জিনিসপত্র। মঙ্গলবার পুলিশ জানিয়েছে, এই ঘটনাকে কেন্দ্র করে চাঞ্চল্য ছড়ায় নেপালের সুদুরপশ্চিম প্রদেশের কাইলালি জেলায়। এদিকে সন্দেহজনক বস্তুকে কেন্দ্র করে এতটাই আতঙ্ক ছড়িয়েছে যে কাউকেই সেগুলির কাছে যেতে দেওয়া হচ্ছে না। বরং নিরাপত্তার খাতিরে বম্ব স্কোয়াডকে খবর পাঠানো হয়েছে। তবে সন্দেহজনক তিনটি বস্তু বম্ব নাকি অন্যকিছু তা এখনও জানা যায়নি।

তবে পরিস্থিতি বিবেচনা করে ইতিমধ্যেই কাইলালি জেলার সদর দপ্তর ধানগাধির নিরাপত্তা বাড়ানো হয়েছে। গতবছর সেপ্টেম্বর মাসেও এমনই ভাবে নেপালের কাঠমান্ডুতে অবস্থিত পশুপতিনাথ মন্দিরে মিলেছিল সন্দেহজনক বস্তু। সেই সময় সেনাকেও খবর দেওয়া হয়েছিল। এই পশুপতিনাথ মন্দির হল হিন্দুদের অন্যতম পবিত্র ধর্মস্থান। এটি শিবের মন্দির। আরও পড়ুন-MP Governor: প্রয়াত মধ্যপ্রদেশের রাজ্যপাল লালজি টন্ডন

এদিকে সোমবারই বিহারের কিষাণগঞ্জে নেপাল ভারত সীমান্তের নো ম্যানস ল্যান্ডে নেপাল পুলিশের গুলিতে এক ভারতীয় আহত হয়েছেন। এর আগে গত ১২ জুন বিহারের সীতামঢ়ি জেলার লালবান্দি জানকী নগরের কাছে ভারত নেপাল সীমান্তে নেপালের পুলিশ বাহিনীর গুলিতে ১ ভারতীয়র মৃত্যু হয়েছিল। সেই ঘটনায় জখম হন দুই ভারতীয়। সেই ঘটনার রেশ কটার আগেই সীতা গুহা সীমান্তে ভারতের পিলার গুঁড়িয়ে দেওয়ার অভিযোগ উঠেছে নেপালের স্থানীয় জনগণের বিরুদ্ধে। স্থানীয় মানুষের দাবি, ওই এলাকা তাঁদেরই। ভারত-নেপাল সীমান্তে সীতা গুহার সামনেই একটি পিলার ছিল। সীতা গুহার কাছে যে এলাকা রয়েছে, তা নেপালের বলে দাবি করে কয়েক জন নেপালি নাগরিক তা বড় হাতুড়ি দিয়ে ভেঙে গুঁড়িয়ে দেন বলে অভিযোগ।তবে খবরের সত্যতা ভারতীয় সেনা বাহিনীর তরফে স্বীকার করা হয়নি। ভারতীয় বিদেশমন্ত্রক ও প্রতিরক্ষা মন্ত্রক থেকেও এ নিয়ে কিছু জানানো হয়নি। সীতা গুহায় পিলার ভাঙার খবর পেয়ে সেখানে পৌঁছেছে ভারতীয় সেনা।