Air Canada Flight: বিমান কর্তৃপক্ষের গাফিলতিতে বৃদ্ধ বাবার মৃত্যু, এয়ার কানাডা ফ্লাইটের বিরুদ্ধে বিস্ফোরক অভিযোগ মেয়ের
Air Canada Flight (Photo Credits: Wikimedia Commons)

বিমানের মধ্যে অসুস্থ বাবা চিকিৎসা না পেয়ে শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেছেন। এয়ার কানাডা ফ্লাইটের বিরুদ্ধে (Air Canada Flight) বিস্ফোরক অভিযোগ তুললেন ভারতীয় বংশোদ্ভূত এক কানাডিয়ান মহিলা। চিকিৎসার জরুরি অবস্থাতেও সঠিক সময়ে অবতারণ করেনি বিমান। যার কারণে তাঁর ৮৩ বছরের বৃদ্ধ বাবার মৃত্যু হয়েছে। দিল্লি থেকে মন্ট্রেয়ালগামী এয়ার কানাডা ফ্লাইটের বিরুদ্ধে এই অভিযোগ তুলেছেন কানাডা নিবাসী মহিলা।

একাধিক সংবাদমাধ্যমে প্রকাশিত তথ্য অনুযায়ী, গত সেপ্টেম্বর মাসে বৃদ্ধ বাবাকে নিয়ে দিল্লি (Delhi) থেকে মন্ট্রেয়াল (Montreal) যাত্রা করছিলেন ওই মহিলা। মাঝ পথে আচমকাই অসুস্থ বোধ করেন হরিশ পন্ত নামে ওই ব্যক্তি। মেয়ে অন্টারিওর বাসিন্দা শানু পান্ডে জানান, দিল্লি থেকে রওনা দেওয়ার প্রায় সাত ঘণ্টা পরে যখন দীর্ঘ দূরত্বের ওই ফ্লাইটটি ইউরোপের উপর দিয়ে যাচ্ছিল তখনই বুকে ব্যথা ওঠে তাঁর বাবার। বমি, পিঠে ব্যথা, নিয়ে দাঁড়াতে পারছিলেন না বৃদ্ধ। বিমান কর্মীদের তিনি অনুরোধ করেন ফ্লাইটের জরুরি অবতারণ করে তাঁর বাবাকে হাসপাতালে পৌছনোর ব্যবস্থা করার জন্যে। কিন্তু তাঁর অনুরোধে কর্নপাত করেননি বিমানের কোন কেবিন ক্রু।

জরুরি অবতারণ তো দূর অস্ত উপরন্তু বিমানটি আরও নয় ঘন্টার পথ অতিক্রম করে। মন্ট্রেয়ালে অবতারণের আগে আয়ারল্যান্ড, আটলান্টিক মহাসাগর এবং পূর্ব কানাডা জুড়ে ভ্রমণ করে শেষমেশ অবতারণ করে। প্রায় ১৭ ঘণ্টার যাত্রা অতিক্রম করে যতক্ষণে তিনি বাবাকে চিকিৎসকের কাছে নিয়ে গিয়েছেন ততক্ষনে বৃদ্ধর মৃত্যু হয়েছে। চোখের সামনেই একটু একটু করে শেষ হয়ে যেতে দেখেছেন বাবাকে, ক্ষোভ মেয়ের।

অন্যদিকে ওই মহিলা যাত্রীর অভিযোগ সম্পূর্ণ অস্বীকার করেছে এয়ার কানাডা ফ্লাইট (Air Canada Flight) কর্তৃপক্ষ। বৃদ্ধ যাত্রীর মৃত্যুর জন্যে অন্য কোন কারণ দায়ী বলে পালটা দাবি বিমান কর্তৃপক্ষের। মুখপাত্র, পিটার ফিটজপ্যাট্রিক জানান, বিমান ক্রুরা চিকিৎসা সংক্রান্ত জরুরী অবস্থা মোকাবেলায় সঠিক পদ্ধতি অনুসরণ করেছে।