State of Emergency Over Australia: দাবানলে পুড়ছে অস্ট্রেলিয়া, ৭ দিনের জন্য জারি জরুরি অবস্থা
দাবানলে পুড়ছে অস্ট্রেলিয়া (Photo Credits: AFP)

বাক্সটন, ১৯ ডিসেম্বর: অস্ট্রেলিয়ার (Australia) নিউ সাউথ ওয়েলসে ভয়াবহ আকার ধারণ করেছে দাবানল (Bushfires)। ছড়িয়ে পড়েছে ক্রমশ দানবের মত। দাবানলের জেরে তীব্র দাবদাহের সৃষ্টি হয়েছে। অস্ট্রেলিয়ায় গত কয়েক সপ্তাহ ধরে দাবানল চলছে। এর জেরে শতাধিক অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা ঘটেছে। এরমধ্যে সিডনিতে একটি বড় ধরনের অগ্নিকাণ্ড ঘটেছে। ফলে অস্ট্রেলিয়ার এই বৃহত্তম শহর বিষাক্ত কালো ধোঁয়ায় ছেয়ে গেছে। পরিস্থিতি ঠেকাতে সাতদিনের জন্য জারি করা হল জরুরি অবস্থা (State of Emergency)। আজ বৃহস্পতিবার থেকেই কার্যকর হবে এই জরুরি অবস্থা বলে জানা গিয়েছে।

অস্ট্রেলিয়ায় মঙ্গলবার পর্যন্ত সর্বোচ্চ তাপমাত্রা ছিল ৪০ দশমিক ৯ ডিগ্রি। আর এদিন সেন্ট্রাল সিডনিতে তাপমাত্রা ঠেকেছে ৪১ ডিগ্রিতে। পশ্চিমাঞ্চলে ৪৫ ডিগ্রিতে। এর আগে নিউ সাউথ ওয়েলসে গত সেপ্টেম্বরে জরুরি অবস্থা জারি করা হয়। সে সময়ও দাবানল পরিস্থিতি ভয়াবহ হয়ে উঠেছিল। দাবানলের সূত্রপাত হওয়ার পর এ রাজ্যে দ্বিতীয়বারের মতো জরুরি অবস্থা জারি হল। অস্ট্রেলিয়ায় মারাত্মক প্রাকৃতিক দুর্যোগের (Disaster) মধ্যে রয়েছে তাপদাহ। দীর্ঘ খরায় বিপর্যস্ত অস্ট্রেলিয়ার জন্য ভয়াবহ সঙ্কট এটি। জানা গেছে, অস্ট্রেলিয়ার প্রতিরক্ষা বাহিনীর সঙ্গে যৌথভাবে যুক্তরাষ্ট্র ও কানাডার বিভিন্ন দল কাজ করছে। আগুন নিয়ন্ত্রণে প্রায় ২ হাজার দমকল কর্মী টানা লড়াই করে যাচ্ছেন। খারাপ আবহাওয়া স্বাস্থ্যের ঝুঁকিও বাড়াচ্ছে। আগুনের কারণে ছড়িয়ে পড়া কালো ধোঁয়া ও বিপর্যস্থ আবহাওয়ার কারণে চলতি সপ্তাহে সিডনিতে জরুরি স্বাস্থ্য সতর্কতা জারি করেছে প্রশাসন। আরও পড়ুন: Donald Trump Impeachment: মার্কিন কংগ্রেসের ক্ষমতা অপব্যবহারের অভিযোগ, সেনেটে বিচারের মুখোমুখি ডোনাল্ড ট্রাম্প

গত কয়েক মাসে দাবানলের কারণে অস্ট্রেলিয়ার বিভিন্ন স্থানের প্রায় ৩০ লাখ হেক্টর জমি আগুনে (Fire) পুড়ে ছাই হয়ে গেছে। অগ্নিকাণ্ডে এখন পর্যন্ত মৃত্যু হয়েছে ছয়জনের। এছাড়া ৮০০-এরও বেশি ঘরবাড়ি ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে বলেও মিলেছে খবর।