Kolkata Shocker: বেড়ালকে পোষ্য রাখা নিয়ে স্বামীর সঙ্গে ঝগড়া, গলায় দড়ি দিয়ে আত্মঘাতী মহিলা
প্রতীকী ছবি (Photo Credits: IANS)

কলকাতা: বাড়ির পোষ্য (Pet) বেড়াল (cat) নিয়ে স্বামীর (husband) সঙ্গে প্রচণ্ড ঝগড়া (argument) হয়েছিল স্ত্রী। বাড়ি থেকে বেড়াল বের করে দেওয়ার নির্দেশ দিয়েছিলেন স্বামী। তার জেরে আত্মঘাতী (suicide) হলেন ৪১ বছরের এক মহিলা। মৃতার নাম শিল্পী সাহা। মর্মান্তিক এই ঘটনাটি ঘটেছে কলকাতার (Kolkata) মানিকতলার (Maniktala) মুরারিপুকুর (Muraripukur) এলাকায়।

স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, ১৮ মাসে আগে শিল্পী সাহার বাড়িতে প্রবেশ করেছিল কতগুলো বেড়াল। তারপর থেকে স্বামী মহাদেব সাহার সঙ্গে এই বিষয়টি নিয়ে গণ্ডগোল শুরু হয়েছিল শিল্পীর। পেশায় ফিটনেস ট্রেনার মহাদেবের অভিযোগ ছিল, পোষ্যরা শোওয়ার ঘর-সহ গোটা বাড়ি নোংরা করছে। এর থেকে রোগ হওয়ারও সম্ভাবনা রয়েছে।

সম্প্রতি ডিপথেরিয়াতে আক্রান্ত হয় ওই দম্পতির ১৬ বছরের ছেলে। বেলেঘাটার আইডি হাসপাতালে তাকে ভর্তি করার পর চিকিৎসকরা জানান, পশুর লোমের কারণেই রোগটি হয়েছে। এরপরই গত রবিবার দুপুরে মহাদেব ও শিল্পীর মধ্যে বিষয়টি নিয়ে তুমুল ঝগড়া হয়। মহাদেব বেড়ালগুলোকে বাড়ি থেকে তাড়ানোর বিষয়ে অনড় ছিল।

পরে সন্ধ্যাবেলা দুজনে হাসপাতালে ছেলেকে দেখতে গেছিলেন। রাতে মহাদেব সেখানে থেকে যান আর বাড়ি ফিরে আসেন শিল্পী। সোমবার সকালে শিল্পীর শ্বশুরবাড়ির একজন সদস্য তাঁকে খুঁজতে এসে অনেক ডাকাডাকি করতে থাকেন, ডোরবেল বাজান। বহুক্ষণ বাদে পুলিশ এসে দরজা ভেঙে দেখতে পায় ঘরের সিলিংফ্যানের সঙ্গে গলায় শাড়ি বেঁধে আত্মঘাতী হয়েছেন শিল্পী। আরও পড়ুন: West Bengal New Brand Ambassador: বাংলার মুখ সৌরভ, বাণিজ্য সম্মেলনে দাদাকে ব্র্যান্ড অ্যাম্বাসাডর সম্মান দিদির