West Bengal Weather Update: মাঘের শেষেও চাদরে মুড়ে বাংলা, বৃহস্পতিবার থেকে চড়বে পারদ
প্রতীকী ছবি (Representational Image Only)

কলকাতা, ১২ ফেব্রুয়ারি: বুধবারেও চালিয়ে খেলছে শীত (Winter)। ক্রিজে টিকে থাকার এই আপ্রাণ চেষ্টা থেকে বেশ বোঝা যাচ্ছে সেঞ্চুরি না হাঁকিয়ে এবারের মতো সে বিদায় নেবে না। তবে বেলা যত বাড়ছে ততই পারদ চড়ছে। কাঁপুনি দেওয়া ঠান্ডা অনুভূত হলেও তাপমাত্রা ১৩.৪ ডিগ্রি। মঙ্গলবার দুপুরে ২৭ ডিগ্রিতে পৌঁছেছিল। তুলনায় উত্তাপ বাড়লেও দুই সময়ের তাপমাত্রাই স্বাভাবিকের থেকে বেশ কয়েক ডিগ্রি কম। তবে আজ ঠান্ডা থাকলেও কাল অর্থাৎ বৃহস্পতিবার থেকে ফের চড়বে পারদ। ধীরে ধীরে ফিকে হবে মাঘের শীত। তার জায়গা নেবে বসন্ত। আগামী কয়েকদিন ঠান্ডার অনুভূতি থাকবে ঠিকই তবে ফের কাঁপুনি দিয়ে শীত আর ফিরবে না।

আলিপুর হাওয়া অফিসের তরফে জানানো হয়েছে, এবারের মতো ঠান্ডা বিদায় নেওয়ার সময় হয়ে এসেছে। তবে বৃষ্টির কোনও সম্ভাবনা এখন নেই। পশ্চিমী ঝঞ্ঝা আপাতত কোনও প্রতিবন্ধকতা তৈরি করবে না। প্রাকৃতিক দুর্যোগের ফাঁড়া কাটিয়ে ফের নতুন করে সেঞ্চুরির পথে এগোচ্ছে শীত। ফেব্রুয়ারির এই সময় সাধারণত ঠান্ডা বচ্ছরকার মতো পাত্তারি গুটিয়ে দখিনা বাতাসকে পথ ছেড়ে দেয়। এবার যেন একেবারে উলটপুরাণ চলছে। জানুয়ারির শুরু থেকেই পশ্চিমী ঝঞ্ঝার দাপটে বারবার বৃষ্টিপাত, মেঘলা আকাশ, কুয়াশার ঘনঘটা। একেবারে অলঙ্কারে সমৃদ্ধ শীত দেখল গোটা বাংলা। সরস্বতী পুজোর সময়টাতেও ঘনিয়ে আসা মেঘ মনটাকে বড় খারাপ করে দিয়েছিল। বইমেলার শেষবেলাতেও মেঘলা আাশ আর বৃষ্টির সম্ভাবনা উদ্বেগ বাড়িয়ে দেয়। তবে সব ভাল তার শেষ ভাল য়ার। রবিবাররে ঝলমল রোদ্দুরে বইমেলাতে এবারকার মতো বিদায় জানাতে কষ্ট হলেও দুঃখ হয়নি। আরও পড়ুন-West Bengal Weather Update: সরস্বতী পুজোর পরেও ফের জমিয়ে ব্যাটিং শীতের, কলকাতায় পারদ পতন

সোমবার থেকেই ঝকঝকে রোদ্দুর যত আকাশজুড়ে ছড়িয়েছে ততই ঠান্ডা ফিরেছে পুরনো আমেজে। মঙ্গলবার সকালেও তার অন্যথা হল না। শহর কলকাতার তাপমাত্রা ১৩ ডিগ্রিতে নেমে এসেছে। যা স্বাভাবিকের তুলনায় চার ডিগ্রি কম। জেলার তাপমাত্রা আরও নেমেছে। বীরভূম, বাঁকুড়া পুরুলিয়া ১০ ডিগ্রি ছুঁয়েছে। বুধবারেও এই ঠান্ডার রেশ থাকবে। তবে বৃহস্পতিবার থেকে ধীরে ধীরে পারদ চড়বে বলেই জানিয়েছে আলিপুরের হাওয়া অফিস। তবে এই ঠান্ডা আর গরমের মাঝে পশ্চিমী ঝঞ্ঝা এখনই আর মাথা গলাতে আসছে না। তাই এই মুহূর্তে বৃষ্টির সম্ভাবনা নেই বললেই চলে।