Winter In West Bengal: শিয়রে ঘূর্ণিঝড় বুরেভির চোখরাঙানি, তার মধ্যেই রাজ্যে ফিরল শীত
প্রতীকী ছবি (Representational Image Only)

কলকাতা, ১ ডিসেম্বর:  সোমবার তাপমাত্রা নামলেও মঙ্গলবার তুলনায় উষ্ণই রইল পশ্চিমবঙ্গ। তবে বাতাসে পুরোপুরি শীতের আমেজ জানান দিল ডিসেম্বরের প্রথম সকালের উপস্থিতি। আলিপুর হাওয়া অফিসের পূর্বাভাস অনুয়ায়ী আগামী কয়েকদিনে তাপমাত্রা আরও কমবে (Winter IN West Bengal)। তবে শীত কিছুটা বাধা পেতে পারে বঙ্গোপসাগরে সৃষ্ট নয়া নিম্নচাপের কারণে। নিম্নচাপটি কন্যাকুমারী থেকে এক হাজার কিলোমিটারেরও বেশি দূরে রয়েছে। ২ ডিসেম্বর রাতে সেটি শ্রীলঙ্কা উপকূলে আছড়ে পড়ার পর ভারতীয় ভূখণ্ডের খুব কাছ দিয়ে কোমরিন সাগরে পৌঁছবে। তারপর সেটি আরব সাগরে ফের শক্তি বাড়াত পারে বলে অনুমান। আপাতত পূর্বাভাস, নিম্নচাপের প্রভাবে বুধবার দুর্যোগপূর্ণ আবহাওয়া থাকবে তামিলনাডু ও কেরালার দক্ষিণ ভাগে। সঙ্গে থাকবে ঝোড়ো হাওয়া। আরও পড়ুন- Hyderabad to Bhagyanagar: হায়দরাবাদের নাম বদলে ভাগ্যনগর, যোগীর প্রস্তাবে সায় অখিল ভারতীয় আখরা পরিষদের

এর জেরে ভারী থেকে অতি ভারী বর্ষণের সম্ভাবনাও রয়েছে। মূল শ্রীলঙ্কা লাগোয়া দক্ষিণ তামিলনাড়ুতেই বেশি বৃষ্টি হবে। সতর্কতা জারি করা হয়েছে কেরালার দক্ষিণাংশেও। যাবতীয় দুশ্চিন্তা নতুন এক নিম্নচাপকে ঘিরে। সোমবার সেটি শক্তি বাড়িয়ে গভীর হয়েছে। মঙ্গলবারই সেটি শক্তি বাড়িয়ে ঘূর্ণিঝড়ে পরিণত হতে পারে। ইতিমধ্যেই মালদ্বীপ ঘূর্ণিঝড়টির নামকরণ করেছে বুরেভি। সুতরাং বুরেভির গেরোয় উধাও হতে পারে শীত। তবে কী আর করা যাবে করোনাকালে এভাবেই আবহাওয়ার পট পরিবর্তন চলছে। বৃষ্টি এসেছে দেরিতে, সরকারিভাবে বিদায় নেওয়ার পরেও বর্ষার মরশুম যেন কোতাও থেকেই গিয়েছে। সঙ্গে বছরভর চলছে একের পর এক ঘূর্ণিঝড়। নিভারের প্রভাবে নভেম্বরের শেষ লগ্নে পড়া ঠান্ডাও দুদিনের জন্য হাড় কাঁপিয়ে বাংলা থেকে বিদায় নিয়েছিল। মহামারীর বাজারে আচমকা খুশি শীতের মুখ দেখে শহর কলকাতাও সোয়েটারে মুড়েছিল শরীর। কিন্তু বিধি বাম, তবে আশা করা যায় ডিসেম্বরের শীত ফিরবে। বাতসে থাকবে উৎসবের আমেজ। পিঠেপুলির গন্ধে ভরে উঠবে গ্রাম বাংলা। তার সামান্য স্বাদগন্ধ শহুরে জীবনেও আনবে আনন্দের রেশ