West Bengal Budget 2020: প্রকল্পের নামে রাজ্যের প্রান্তিক মানুষদের ঘুষ দেওয়ার চেষ্টা সরকারের, বাজেট প্রসঙ্গে বিস্ফোরক দিলীপ ঘোষ
Photo Source: IANS

কলকাতা, ১০ ফেব্রুয়ারি: ২০২১ সালে রাজ্যের বিধানসভা ভোট (West Bengal Assembly Election 2021)। সেই নির্বাচনকে মাথায় রেখেই রাজ্য বাজেটে 'কল্পতরু' মমতা ব্যানার্জির সরকার (Mamata Banerjee)। রাজ্য বাজেটে ৬টি নতুন প্রকল্পের প্রস্তাব-সহ প্রতিটি পরতে পরতে কেন্দ্রকে তুলোধনা করেন অর্থমন্ত্রী অমিত মিত্র (Finance Minister Amit Mitra)। মোট ২,৫৫,৬৭৭ কোটি টাকার বাজেট পেশ করেন অর্থমন্ত্রী। দেশজুড়ে যেখানে বেকারত্বের (Unemployment) সংখ্যা ক্রমশ বাড়ছে। সেখানে রাজ্য সরকারের হিসেব বলছে, আগের তুলনায় রাজ্যে বেকারত্ব কমেছে ৪০ শতাংশ। পাশাপাশি ছোট এবং মাঝারি শিল্পের সংখ্যাও আগের তুলনায় বেশ কিছুটা বেড়েছে বলে দাবি করেন অর্থমন্ত্রী। রাজ্য বাজেট পেশ হওয়ার পরেই মমতা ব্যানার্জির সরকারকে আক্রমণ করলেন দিলীপ ঘোষ (Dilip Ghosh)।

দিলীপ ঘোষের দাবি, ১৯-র লোকসভা নির্বাচনের ফলেই স্পষ্ট হয়ে গিয়েছিল যে রাজ্যের প্রান্তিক এবং আদিবাসী এলাকার মানুষ তৃণমূলের উপর মানুষ বিশ্বাস হারিয়ে ফেলেছেন। সেই কারণে একাধিক প্রকল্পের সূচনা করে তাঁদের আস্থা ফিরে পাওয়ার চেষ্টা করছে রাজ্য সরকার। কিন্তু এসমস্ত প্রকল্প আদতে কতটা বাস্তব রূপ নেবে সেই নিয়ে সংশয় প্রকাশ করলেন দিলীপ ঘোষ। আরও পড়ুন: West Bengal Budget 2020:প্রবীণ তফশিলিদের সামাজিক সুরক্ষায় মাসে ১০০০ টাকা বার্ধক্য ভাতা, ঘোষণা অমিত মিত্রের 

প্রবীণ তফশিলিদের সামাজিক সুরক্ষায় মাসে ১০০০ টাকা বার্ধক্য ভাতা ঘোষণা করেছে রাজ্য সরকার। এই বিশেষ প্রকল্পটির নাম 'বন্ধু' (Bandhu Prakalpa)। আদিবাসী ও তফশিলি উপজাতির সমস্ত প্রবীণকে মাসে ১ হাজার টাকা করে ভাতা দেওয়া হবে। এই নয়া প্রকল্পের নাম 'জয় বাহার'(Joy Bahar)। এই দু'টো প্রকল্পের মাধ্যমে আদিবাসী, তফশিলি জাতি এবং উপজাতি মানুষদের 'ঘুষ' দেওয়ার চেষ্টা করছে রাজ্য সরকার। এমনটাই দাবি দিলীপ ঘোষের।

বেকার যুবক-যুবতীদের জন্য প্রস্তাব করা 'কর্মসাথী' (Karmasathi) প্রকল্পে থাকছে আগামী ৩ বছরে ফি বছর এক লাখ করে যুবক-যুবতীর কর্মসংস্থানের (Employment) প্রতিশ্রুতি। অমিত মিত্র জানান, এই প্রকল্পের সহজ শর্তে ২ লাখ টাকা পর্যন্ত ঋণ দেওয়া হবে। তবে এই ঋণ পড়ুয়াদের কাছে যাওয়ার বদলে তৃণমূল কংগ্রেসের কর্মীদের কাছেই আসবে বলে দাবি দিলীপ ঘোষের। সেই ঋণের টাকায় বিধানসভা নির্বাচনে রাজ্যজুড়ে শাসক দল সন্ত্রাস করবে বলে দাবি করেন তিনি। 'হাসির আলো' প্রকল্পতেও রাজ্য সরকারকে আক্রমণ করতে পিছপা হলেন না দিলীপ ঘোষ। এই প্রকল্পে ৩৫ লক্ষ গরিব পরিবারকে বিনামূল্যে বিদ্যুৎ সরবরাহ করা হবে বলে জানান অমিত মিত্র। সেই নিয়ে দিলীপ ঘোষ বিস্ময় প্রকাশ করে বলেন, 'রাজ্যে এত গরিব রয়েছে, সেটাই তো চিন্তার বিষয়।'

দিলীপ ঘোষের পাশাপাশি কড়া ভাষায় আক্রমণ করেছেন বাম পরিষদীয় দলনেতা সুজন চক্রবর্তী এবং বিরোধী দলনেতা আব্দুল মান্নান (Abdul Mannan)। আব্দুল মান্নানের দাবি 'এই বাজেট প্রতারণার বাজেট। রাজ্যের ঘাটতি নিয়ে কোনও উচ্চবাচ্যই করা হয়নি। চিকিৎসা ব্যবস্থার উন্নয়ন হলেও সবাইকে কেন তাহলে অন্য রাজ্যে ছুটে যেতে হচ্ছে। বেতন সমস্যা, পেনশন নিয়ে কোনও ব্যাখ্যা নেই। তাছাড়া এত প্রকল্পের টাকা আসবে কোথা থেকে? ভোটকে সামনে রেখে লোকদেখানো বাজেট পেশ করেছে রাজ্য সরকার।' আব্দুল মান্নানের পাশাপাশি তৃণমূল সরকারকে 'কল্পতরু' বলে ব্যঙ্গ করলেন সুজন চক্রবর্তী (sujan chakraborty)।