থানা উদ্বোধনকে কেন্দ্র করে পুলিশের সামনেই দুষ্কৃতীদের গুলির লড়াই, ভাটাপাড়ায় মৃত ২
প্রতীকী ছবি(Photo Credit: ANI)

ভাটপাড়া, ২০জুন: সাতসকালেই গোলাগুলিতে রণক্ষেত্র উত্তর ২৪ পরগনার ভাটপাড়া (Bhatpara clashes going on)। এদিন এলাকায় নতুন থানা উদ্বোধনের কথা ছিল। উদ্বোধন করতে আসছিলেন রা্জ্যের ডিজি বীরেন্দ্র, কিন্তু গোলাগুলির খবর পেয়ে মাঝপথেই ফের কলকাতায় রওনা হয়ে যান তিনি। স্থানীয় সংবাদমাধ্যম সূত্রের খবর, বৃহস্পতিবারের ঘটনায় এখনও পর্যন্ত দুজনের মৃত্যুর খবর পাওয়া গিয়েছে। এদিকে নবান্ন থেকেই নতুন থানা ও জগদ্দল থানাকে সতর্ক করা হয়েছে। পরিস্থিতির মোকাবিলায় নবান্নে মুখ্যসচিব মলয় দে, স্বরাষ্ট্র সচিব আলাপন বন্দ্যোপাধ্যায়, ডিজি-সহ পুলিশের শীর্ষকর্তাদের নিয়ে জরুরি বৈঠক সারেন মুখ্যমন্ত্রী (CM Mamata Banerjee)। আরও পড়ুন-মমতা ব্যানার্জি -র বাইরে সামনে তৃণমূলের 'গোষ্ঠীসংঘর্ষ', রাতের কালীঘাটে মহাঅশান্তি

বৈঠক শেষে স্বরাষ্ট্র সচিব বলেন, ‘‘ভাটপাড়ায় বহিরাগত কিছু দুষ্কৃতী স্থানীয়দের সঙ্গে হাত মিলিয়েছে। শান্তি বিঘ্নিত হচ্ছে। পরিস্থিতি স্বাভাবিক করতে জগদ্দল এবং ভাটপাড়া থানা এলাকায় ১৪৪ ধারা জারি করার হয়েছে।” লোকসভা বোটের আগে বাহুবলী অর্জুন সিং তৃণমূল ছেড়ে বিজেপিতে যোগ দিতেই উত্তাল হয়ে ওঠে ভাটপাড়া লাগোয়া বারাকপুরের শিল্পাঞ্চল। যেকোনও সময়ই গোলাগুলি, মুড়িমুড়কির মতো বোমা পড়তে থাকা একেবারে জলভাত ব্যাপার হয়ে দাঁড়ায়। এরমধ্যে বেশ কয়েকজন খুনও হয়ে গিয়েছেন। আজ যেমন ভাটপাড়ায় পুলিশের সামনেই দুই দুষ্কৃতীদলের লড়াই লাগে, শুরু হয় বোমা ছোঁড়াছুঁড়ি, দুষ্কৃতীদের এই বোমা-গুলির লড়াইয়ে মৃত্যু হয়েছে কমপক্ষে দু’জনের। মৃত একজনের নাম রামবাবু সাউ (২৬)। গুরুতর জখম হয়েছেন ৫ জন। তবে, এখনও সরকারি ভাবে পুলিশ কর্তারা কিছু জানাননি। পরিস্থিতি সামলাতে পুলিশ কাঁদানে গ্যাস এবং শূন্যে ১০ রাউন্ড গুলিও চালায়। এদিকে সংঘর্ষে মৃত্যুর খবরে বিজেপি নেতা অর্জুন সিংয়ের দাবি, পুলিশের গুলিতেই ওই দুজনের মৃত্যু হয়েছে।

উল্লেখ্য, ভাটপাড়ার রাজনৈতিক মানচিত্র খুব দ্রুত বদলে যাচ্ছে। লোকসবা ভোটের ফল প্রকাশের পর থেকেই শাসক তৃণমূল যেন একঘরে হয়ে পড়েছে। এদিন নবান্নে বৈঠকের পরই বিশেষ বাহিনী পাঠানো হয় ভাটপাড়ায়। র‌্যাফ এবং কমব্যাট ফোর্স রুটমার্চ শুরু করেছে এলাকায়। সংঘর্ষ আপাত ভাবে থামলেও, আতঙ্ক চারদিকে। বিভিন্ন এলাকার ভিতরে পুলিশি তল্লাশি চলছে। স্থানীয়দের আশঙ্কা ফের যে কোনও মুহূর্তে সংঘর্ষ শুরু হয়ে যেতে পারে। অন্যদিকে ভাটপাড়ায় থানা উদ্বোধন স্থগিত থাকলেও কাজ শুরু হয়ে গিয়েছে, থানার আইসি-র দায়িত্ব পেয়েছেন রাজর্ষি দত্ত।