West Bengal Assembly Elections: ফিরে দেখা ২০১১ ও ২০১৬ সালের বিধানসভা নির্বাচন
Representational Image | (Photo Credits: Getty Images)

কলকাতা, ৩ মার্চ: ২৬ ফেব্রুয়ারি পশ্চিমবঙ্গ সহ ৫ রাজ্যের বিধানসভা নির্বাচনের নির্ঘণ্ট ঘোষণা করেছে নির্বাচন কমিশন। পশ্চিমবঙ্গে (West Bengal Assembly Election 2021) ৮ দফায় ভোটগ্রহণ হবে। প্রথম দফার ভোট ২৭ মার্চ। শেষ দফার ভোট ২৬ এপ্রিল। অন্য বিরোধীরা থাকলেও ২০২১ সালের বিধানসভা নির্বাচন হবে শাসক দল তৃণমূল কংগ্রেস বনাম বিজেপি। একদিকে তৃতীয়বার ক্ষমতা ধরে রাখতে মরিয়া তৃণমূল। অন্যদিকে প্রথমবার রাজ্যে সরকার গড়তে সব শক্তি দিয়ে ঝাঁপিয়েছে বিজেপি। দেখে নেওয়া যাক, বিগত দুটি বিধানসভা ভোটের ফলাফল। আজ এখানে আমরা ফিরে দেখব ২০১১ ও ২০১৬ সালে হওয়া পশ্চিমবঙ্গ বিধানসভা নির্বাচন।

২০১১ বিধানসভা নির্বাচন ছিল পরিবর্তনের। ওই নির্বাচনেই মাধ্যমেই পশ্চিমবঙ্গে ৩৪ বছরের বাম শাসনের অবসান ঘটেছিল। সংখ্যাগরিষ্ঠ আসনে জয়ী হয়ে বাংলার মুখ্যমন্ত্রী হন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। মোট ৬ দফায় হয়েছিল ২০১১ সালে। সেবার ভোটগ্রহণ পর্ব শুরু হয়েছিল ১৮ এপ্রিল থেকে। শেষ দফার ভোটগ্রহণ হয়েছিল ১০ মে। ১৩ মে ফলাফল ঘোষণা হয়। একক সংখ্যাগরিষ্ঠতা নিয়ে বামেদের সরিয়ে বিধানসভায় ক্ষমতা দখল করে তৃণমূল। ২০১১ বিধানসভা নির্বাচনে জোট করে বামেদের বিরুদ্ধে লড়াই করেছিল কংগ্রেস ও তৃণমূল। অন্যদিকে, বিজেপি-নেতৃত্বাধীন এনডিএ জোটও ভোটের লড়াইয়ে নেমেছিল আলাদা করে। আরও পড়ুন: West Bengal Assembly Election 2021 Dates: ৮ দফায় ভোট পশ্চিমবঙ্গে, ২৭ মার্চ প্রথম দফায় ভোট, গণনা ২ মে

ফলাফল: বিধানসভায় মোট আসন সংখ্যা ২৯৪। বামফ্রন্ট পেয়েছিল মাত্র ৬২টি। কংগ্রেস-তৃণমূল জোট পেয়েছিল ২২৭টি আসন। একা তৃণমূল পেয়েছিল ১৮৪ আসন। ৪২টি আসন জিতেছিল হাত শিবির। বিজেপি ও গোর্খা জনমুক্তি মোর্চা জোট পেয়েছিল ৩টি আসন। যদিও, এই তিনটিই পেয়েছিল মোর্চা। একা বিজেপির ভাগ্যে কোনও আসন জোটেনি।

২০১৬ সালের বিধানসভা নির্বাচনে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের নেতৃত্বে সর্বভারতীয় তৃণমূল কংগ্রেস পুনঃনির্বাচিত হয়। ১৯৬২ সালের পর সেই প্রথম কোনও রাজনৈতিক দল জোট না করে একক শক্তিতে ক্ষমতায় আসে। ২০১১ সালের বিধানসভা নির্বাচনের মতো এই নির্বাচনও ছয় দফায় ভোট হয়েছিল। প্রথম দফাটি ৪ এপ্রিল ও ১১ এপ্রিল তারিখে রাজ্যের নকশালবাদী-মাওবাদী প্রভাবিত রেড করিডোর এলাকায় আয়োজিত হয়। পরবর্তী দফায় নির্বাচন হয় ১৭ এপ্রিল, ২১ এপ্রিল, ২৫ এপ্রিল, ৩০ এপ্রিল ও ৫ মে। তৃণমূল একাই লড়ে। অন্যদিকে জোট হয় বাম ও কংগ্রেসের মধ্যে।

ফলাফল: তৃণমূল একাই ২১১টি আসনে জিতে দ্বিতীয়বার ক্ষমতায় আসে। অন্যদিকে বাম-কংগ্রেস জোট পায় মাত্র ৭৬টি আসন। । বিজেপি ও গোর্খা জনমুক্তি মোর্চা জোট পেয়েছিল ৬টি আসন। ১টি আসনে জেতেন নির্দল প্রার্থী।