আগামী মাসে রাজ্যের তিন বিধানসভায় উপনির্বাচন, গুরুত্বপূর্ণ এই ভোট নিয়ে জানুন পাঁচ তথ্য
ভারতের নির্বাচন কমিশন। ফাইল ছবি। (Photo Credits: PTI)

Bypolls in West Bengal: অক্টোবরে দেশের দুই রাজ্য মহারাষ্ট্র (Maharastra) , হরিয়ানা (Haryana) র সঙ্গে রাজ্যের তিন বিধানসভা আসনের উপনির্বাচন। লোকসভা নির্বাচন ২০১৯-এ রাজ্যে বিজেপি-র চমকপ্রদ ফলের পর আসন্ন এই উপনির্বাচন দারুণ জমে গিয়েছে। দুর্গাপুজো, লক্ষ্মীপুজো মেটার পর যখন কালীপুজো, দিওয়ালির বাদ্যি বাজবে তখনই রাজ্যে ভোট। আগামী ২১ অক্টোবর উপনির্বাচন হবে এই ৩ বিধানসভা আসনে। ফল প্রকাশিত হবে ২৪ অক্টোবর।

পশ্চিম মেদিনীপুরের খড়গপুর সদর (Kharagpur Sadar) , নদিয়ার করিমপুর (Karimpur) এবং উত্তর দিনাজপুরের কালিয়াগঞ্জে (Kaliyaganj) বিধানসভা আসনের উপনির্বাচনে ভোটগ্রহণ হবে। আরও পড়ুন-সাবধান! এবার কোনও মহিলাকে মধ্যমা দেখালে হতে পারে জেলযাত্রা

খড়গপুর সদর ও করিমপুরে উপনির্বাচনে ভোট হওয়ার কারণটা এক। এই দুই বিধানসভা কেন্দ্রের বিধায়করা সাংসদ হয়ে যাওয়ায় পদত্যাগ করেছেন। খড়গপুর সদর-এর বিধায়ক দিলীপ ঘোষ মেদিনপুরের সাংসদ হয়েছে। আর করিমপুরের বিধায়ক মহুয়া মিত্র ক মাস আগে কৃষ্ণনগর লোকসভা কেন্দ্র থেকে জিতে সাংসদ হয়েছেন। করিমপুর বিধানসভায় কংগ্রেস বিধায়ক প্রমথনাথ রায়ের মৃত্যুতে বেশ কয়েকদিন ধরে ফাঁকা রয়েছে আসনটি। তাই হচ্ছে উপনির্বাচন।

এক নজরে পাঁচ তথ্য-

১) দিলীপ ঘোষ সাংসদ হওয়া খড়গপুর সদর বিধানসভা কেন্দ্রে উপনির্বাচন হবে। ২০১৬ বিধানসভা নির্বাচনে কংগ্রেসের অভিজ্ঞ বিধায়ক জ্ঞান সিং সোহানপালকে ৬ হাজারেরও বেশি ভোটের ব্যবধানে হারিয়ে জিতেছিলেন দিলীপ ঘোষ। এই কেন্দ্রে কংগ্রেস-সিপিএম ও তৃণমূলের মিলিত ভোট প্রায় ৮৯ হাজার, যেখানে বিজেপি ২০১৬ বিধানসভা নির্বাচনে ৬১ হাজার ভোট পেয়েছিল। তবে ক মাস আগে লোকসভা নির্বাচনে এখান থেকে বড় লিড পায়। বিজেপি-র ভোট, প্রভাব ২০১৬-র থেকে এখন অনেকটাই বেড়েছে।

২) খড়গপুর সদরে দিলীপ ঘোষের পরিবর্তে কে বিজেপি কাকে প্রার্থী করে তা নিয়ে জোর জল্পনা। মিডিয়ায় জোর জল্পনা, ঘাটাল লোকসভা কেন্দ্রে জোর লড়াই করা ভারতী ঘোষকে এখানে বিজেপি প্রার্থী করতে পারে। তবে সবটাই জল্পনার স্তরে রয়েছে।

৩) নদিয়ার করিমপুর আসনটি বামেদের একেবারে দুর্গ ছিল। ১৯৭৭ থেকে ২০১১। প্রতিটি নির্বাচনে সিপিআইএম এই কেন্দ্রে জিতে এসেছিল। তবে ২০১৬ বিধানসভায় এই করিমপুরে ফুল ফোটান মহুয়া মিত্র। বিধায়ক, বক্তা ও নেত্রী হিসাবে নজর কাড়ায় তিন বছর পর মহুয়া মিত্রকে কৃষ্ণনগর লোকসভায় প্রার্থী করা হয়। এবং বিজেপির কল্যাণ চৌবকে হারিয়ে তিনি সাংসদ হন।

৪) খড়গপুর সদর, করিমপুর ও কালিয়াগঞ্জে  আগামী ২১ অক্টোবর উপনির্বাচন হবে ।

৫) এই তিন বিধানসভা আসনের ফলপ্রকাশ ২৪ অক্টোবর।