Debendra Nath Ray Death Case: বিজেপি বিধায়কের মৃত্যুর ঘটনায় রাষ্ট্রপতিকে চিঠি মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের
রাষ্ট্রপতির সঙ্গে সাক্ষাৎ তৃণমূল সাংসদ ডেরেক ও'ব্রায়েনের (Photo: ANI)

নতুন দিল্লি, ১৫ জুলাই: বিধায়ক দেবেন্দ্র নাথ রায়ের মৃত্যুর ঘটনায় (Debendra Nath Ray) বিজেপির (BJP) একদিন পরই আজ রাষ্ট্রপতি রামনাথ কোবিন্দের (President Ram Nath Kovind) সঙ্গে দেখা করল তৃণমূল কংগ্রেসের এক প্রতিনিধি দল। সেই দলে ছিলেন তৃণমূল সাংসদ ডেরেক ও'ব্রায়েন (Derek O'Brien)। মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের লেখা একটি চিঠি তিনি রাষ্ট্রপতিকে দিয়ে এসেছেন। তবে রাষ্ট্রপতির সঙ্গে তাঁর কী কথা হল, সেবিষয়ে বিশেষ কিছুই বলতে চাননি তিনি।

চিঠিতে উল্লেখ রয়েছে, "বিজেপি বিধায়ক দেবেন্দ্রনাথ রায়ের রহস্যজনক মৃত্যুর তদন্ত সিআইডি-র হাতে তুলে দেওয়া হয়েছে। আমরা আমাদের এক প্রতিপক্ষকে হারিয়েছি। তাঁর আত্মার শান্তি কামনা করি। তবে এই ঘটনার সঠিক তদন্ত হবে। সত্য সামনে আসুক। রাজ্য সেদিকে কড়া নজর রেখেছে। পশ্চিমবঙ্গ এমন একটি রাজ্য যেখানে সব রাজনৈতিক দল, তাদের নেতা, কর্মীদের শ্রদ্ধা করা হয়।" আরও পড়ুন: Debendra Nath Ray Death Case: বিধায়ক দেবেন্দ্রনাথ রায়ের মৃত্যুর ঘটনায় একজনকে গ্রেপ্তার করল সিআইডি

গতকাল বিধায়কের মৃত্যুতে কৈলাস বিজয়বর্গীয়ের নেতৃত্বে রাষ্ট্রপতির সঙ্গে দেখা করে বিজেপির প্রতিনিধি দল। বাংলায় বিজেপির কেন্দ্রীয় পর্যবেক্ষক কৈলাস বিজয়বর্গীয় বলেন, "খুনকে ধামাচাপা দিতে আত্মহত্যার গল্প সাজানো হচ্ছে। আমরা সিবিআই তদন্ত চাই। বাংলার তদন্তকারীদের উপরে ভরসা নেই। রাষ্ট্রপতিকে জানিয়েছে, এই সরকারের থাকার কোনও অধিকার নেই।"

দেবেন্দ্রনাথ রায়ের মৃত্যুর ঘটনায় একজনকে গ্রেপ্তার করল সিআইডি (CID)। ধৃতের নাম নীলয় সিং (Niloy Singh)। তবে এখনও অধরা মালদার বাসিন্দা অন্য অভিযুক্ত মাবুদ আলি। বিধায়ক তাঁর সুইসাইড নোটে দু’জনের নাম উল্লেখ করেছেন। সোমবার রাতে রায়গঞ্জ থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছেন বিধায়কের স্ত্রী চাঁদিমা রায়। সেখানেও নাম আছে মালদহের ওই দুই ব্যক্তির।