Debendra Nath Ray Death Case: বিধায়ক দেবেন্দ্রনাথ রায়ের মৃত্যুর ঘটনায় একজনকে গ্রেপ্তার করল সিআইডি
ধৃত নীলয় সিং (Photo: ANI)

হেমতাবাদ, ১৫ জুলাই: হেমতাবাদের মৃত বিজেপি বিধায়ক (BJP MLA) দেবেন্দ্রনাথ রায়ের (Debendra Nath Ray) মৃত্যুর ঘটনায় একজনকে গ্রেপ্তার করল সিআইডি (CID)। ধৃতের নাম নীলয় সিং (Niloy Singh)। তবে এখনও অধরা মালদার বাসিন্দা অন্য অভিযুক্ত মাবুদ আলি। বিধায়ক তাঁর সুইসাইড নোটে দু’জনের নাম উল্লেখ করেছেন। সোমবার রাতে রায়গঞ্জ থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছেন বিধায়কের স্ত্রী চাঁদিমা রায়। সেখানেও নাম আছে মালদহের ওই দুই ব্যক্তির।

গতকাল নীলয়কে আটক করার পরে তাঁকে রায়গঞ্জে নিয়ে যায় সিআইডি। আনন্দবাজারের খবর অনুযায়ী, সিআইডি জানিয়েছে, নীলয় সিং ইংরেজবাজার শহরের মকদমপুর এলাকার এক বহুতল আবাসনে থাকতেন। তার স্ত্রী ইংরেজি মাধ্যম স্কুলের শিক্ষিকা। নীলয় আদতে উত্তর দিনাজপুরের কালিয়াগঞ্জের বাসিন্দা। কাজ করতেন রায়গঞ্জের সমবায় ব্যাঙ্কে চুক্তিভিত্তিক অস্থায়ী কর্মী হিসেবে। সমবায় ব্যাঙ্ক সূত্রেই হেমতাবাদের বিধায়ক দেবেন্দ্রনাথ রায়ের সঙ্গে পরিচয়। তার পরে দেবেন্দ্রনাথের বাড়িতে ভাড়া থাকতে শুরু করেন তিনি। আরও পড়ুন: Post-Mortem Report of Debendra Nath Ray: হেমতাবাদের মৃত বিজেপি বিধায়কের ময়নাতদন্তের রিপোর্ট প্রকাশ, আত্মহত্যা বলেই জানালেন বিশেষজ্ঞরা

ঘটনায় অন্য অভিযুক্ত মাবুদ আলি মালদহেরই চাঁচল থানার মতিহারপুর গ্রাম পঞ্চায়েতের ইসলামপুর গ্রামের বাসিন্দা। স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, মাবুদ কোন পেশার সঙ্গে যুক্ত তা কেউ বলতে পারেন না। তবে এলাকায় কোনও জমি বিক্রি হলেই ক্রেতা হিসেবে সবার আগে এগিয়ে আসতেন মাবুদই। গ্রামে তাঁর দোতলা বাড়ি। স্ত্রী এবং দুই ছেলেকে নিয়ে সেখানে থাকতেন তিনি। সম্প্রতি, সাদা রঙের একটি বিলাসবহুল গাড়ি কিনেন মাবুদ। অপহরণ এবং গোলমাল পাকানোর অভিযোগে দু’বার গ্রেফতার হন মাবুদ। জেলও খেটেছিলেন।