West Bengal Political Clash: খানাকুলে তৃণমূল নেতাকে অপহরণ করে পিটিয়ে খুন
Image used for representational purpose

কলকাতা, ১৬ জুন, ২০১৯:‌ মুর্শিদাবাদের (Murshidabad)ডোমকলের পর হুগলির খানাকুলে খুন হলেন এক তৃণমূল নেতা(TMC Leader)। দলীয় কার্যালয় থেকে তুলে নিয়ে গিয়ে তাঁকে পিটিয়ে খুন করা হয়। অভিযোগের তির বিজেপির দিকে।শনিবার সন্ধেয় খানাকুলের হরিশচকে তৃণমূল (Trinomool Congress)কার্যালয়ে বসেছিলেন খানাকুল ২ নম্বর পঞ্চায়েত সমিতির সদস্য ও প্রাক্তন কর্মাধ্যক্ষ মনোরঞ্জন পাত্র(৫৬)। সে সময় কিছু লোক এসে তাঁকে জোর করে তুলে নিয়ে যায় বলে অভিযোগ। রক্তাক্ত অবস্থায় তাঁর দেহ উদ্ধার হয় দলীয় কার্যালয়ের কিছুটা দূরে ফাঁকা মাঠের মধ্যে।

রাত বাড়লেও বাড়ি না ফেরায় মনোরঞ্জনকে খুঁজতে বের হন বাড়ির লোকজন। এর মধ্যেই এলাকার লোকজন মাঠের মধ্যে তাঁর মৃতদেহ পড়ে থাকতে দেখে আত্মীয়দের খবর দেন। সেখান থেকে উদ্ধার করে তাঁকে খানাকুল হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। কিন্তু সেখানে কিচিৎসকরা তাঁকে মৃত বলে ঘোষণা করেন। তৃণমূলের অভিযোগ, বিজেপি আশ্রিত দুষ্কৃতীরা ওই খুনের সঙ্গে জড়িত। বিজেপি অবশ্য ওই অভিযোগ অস্বীকার করেছে।আরও পড়ুন, ডাক্তাররা আক্রান্ত হলে নিতে হবে কড়া ব্যবস্থা, রাজ্য গুলিকে নির্দেশিকা কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্যমন্ত্রকের

রবিবারই খানাকুলে আসছেন অভিষেক ব্যানার্জি। উল্লেখ্য, শনিবার সকালে ডোমকলের কুচিয়ামোড়ায় খুন হন এলাকায় নিহত তৃণমূল নেতা আলতাফ সেখের দুই আত্মীয়। এদিন সাতসকালেই বোমাবাজি ও গুলির লড়াই শুরু হয়ে যায় গ্রামে। দুষ্কৃতীরা গ্রামে ঢুকে খুন করে আলতাফ সেখের ছেলে সোহেল রানা ও দাদা খইরুদ্দিন সেখকে।