এই গরমে আধঘণ্টা করে বিদ্যুৎ বন্ধ করবে রাজ্য, কেন জানেন?
মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়( PTI)

কলকাতা, ২৫জুন: বিদ্যুৎ বাঁচাতে ও পরিবেশ রক্ষার্থে এবার সচেষ্ট হল রাজ্য সরকার। সপ্তাহে আধঘণ্টা লোডশেডিংয়ের (half an hour weekly load shading) মাধ্যমেই এই সাশ্রয় সম্ভব। একদিকে পরিবেশের উন্নতি, অন্যদিকে বিদ্যুৎ সাশ্রয়, একেই বলে অভিনব উদ্যোগ। নবান্নে বিদ্যুৎ ও সেচ দপ্তরের বৈঠকেই এই সিদ্ধান্তের কথা জানান মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় (CM Mamata Banerjee)। তবে জোর করে এই সিদ্ধান্ত কারোর উপরে চাপিয়ে দেওয়া হচ্ছে না। জনগণ যাতে এই উদ্যোগে সায় দেয় সেজন্য সরকারের তরফে আবেদনও জানানো হবে। আরও পড়ুন-West Bengal: বেপরোয়া গতি রুখতে কড়া আইন, দোষ প্রমাণে ১ লাখ টাকা পর্যন্ত জরিমানা

সপ্তাহে একদিন আধঘণ্টা করে বিদ্যুৎ বন্ধের আবাদন রাখবে সরকার। কোন জেলায়, কী বার, কোন সময়ে এই বিদ্যুৎ বন্ধ হবে, তা পরে ঠিক হবে। সরকার আপাতত মনে করছে, আধ ঘণ্টা করে প্রতি সপ্তাহে বিদ্যুৎ বন্ধ হলে, এক দিকে যেমন বিদ্যুৎ ও কয়লা সাশ্রয় হবে, তেমনই তা পরিবেশ রক্ষাতেও সহায়ক হবে। সরকারি অফিস থেকে মন্ত্রীদের দপ্তরগুলিতেও সপ্তাহে এক ঘণ্টা করে বিদ্যুৎ বন্ধ রাখার আবেদন জানিয়েছে নবান্ন।

বৈঠক শেষে যৌথ সাংবাদিক সম্মেলনে বিদ্যুৎমন্ত্রী শোভনদেব চট্টোপাধ্যায় (Electricity Minister Shabhandeb Chatterjee)এবং পরিবহন ও সেচমন্ত্রী শুভেন্দু অধিকারী বলেন (Shubhendu Adhikari), “এটা বাধ্যতামূলক নয়। তবে সরকারের পক্ষ থেকে সচেতনতামূলক প্রচার চালানো হবে জেলায় জেলায়।” সামনেই বর্ষার মরসুম। সেচ ও বিদ্যুৎ দপ্তরের প্রস্তুতি নিয়েও এই বৈঠকে আলোচনা হয়েছে বলে জানিয়েছেন শোভনদেববাবু।বিশ্ব উষ্ণায়ন নিয়ে এমনিতেই চিন্তিত পরিবেশবিদরা। কয়েক দিন আগেই দেখা গিয়েছিল, গ্রিন ল্যান্ডে এক দিনে গলে গিয়েছে ২০০ কোটি টন বরফ। যাকে মারাত্মক বলে জানিয়েছিলেন পরিবেশবিদেরা। আর গত কয়েক বছরে এয়ার কন্ডিশন মেশিনের ব্যবহারও বেড়েছে লাফিয়ে লাফিয়ে। ২০১৭-১৮ অর্থবর্ষে সিইএসসি-র হাওড়া ডিভিশনের হিসেব ছিল, এয়ার কন্ডিশন মেশিনের ডোমেস্টিক সংযোগ হয়েছে প্রায় দু’লক্ষ। ফলে সব দিক বিবেচনা করেই নবান্ন এই পদক্ষেপ করেছে বলে মনে করছেন পর্যবেক্ষকদের অনেকে।