One Year Of Pulwama Attack: আজ পুলওয়ামা শহিদদের শ্রদ্ধাস্মরণ কলকাতার শাহীন বাগে
শাহীনবাগে বিক্ষোভ (প্রতীকি ছবি : PTI)

কলকাতা, ১৪ ফেব্রুয়ারি: পার্ক সার্কাস (Park Circus)। শহর কলকাতার (Kolkata) অন্যতম পরিচিত স্থানটি এখন পরিচিত অন্যভাবে। এই পার্ক সার্কাস এখন হয়ে এ রাজ্যে সিএএ বিরোধী আন্দোলনের অন্যতম কেন্দ্র স্থল। ৩৯ দিন ধরে চলতি এই আন্দোলন ইতিমধ্যেই নাম পেয়েছে 'কলকাতার শাহীন বাগের' (Kolkata's Shaheen Bagh)। দিল্লির শাহীন বাগের (Delhi's Shaheen Bagh) মতোই কলকাতার পার্ক সার্কাসেও মহিলা-শিশুরা রাত জাগছেন সেই কবে থেকে। দিল্লির শাহীন বাগের মতোই পার্ক সার্কাসের আন্দোলনকারীদের বিরুদ্ধেও ধেয়ে এসেছে একাধিক আক্রমণ। সীমান্ত পেরনো বাংলাদেশি বলেও আক্রমণ শানিয়েছেন এরাজ্যের বিজেপি নেতারা (BJP Leaders)। কিন্তু পার্ক সার্কাস ভালোবাসার দিনে (Valentines Day) বুঝিয়ে দিল দেশের শোক তাঁদেরও শোক। দেশের শহিদদের জন্য তাঁদের প্রাণও কাঁদে। কারণ তাঁদের প্রথম পরিচয় তাঁরা ভারতবাসী।

পুলওয়ামা হামলার এক বছরের মাথায় (One Year Of Pulwama Attack) এদিন পার্ক সার্কাসের প্রতিবাদীরা আয়োজন করছেন শহিদ শ্রদ্ধার্ঘ্যের। মাঠের একটা জোন করা হয়েছে। এই সময়ের খবর অনুযায়ী, যেখানে শহিদদের (Martyrs) ছবিতে মাল্যদান করা হবে। জানানো হবে শ্রদ্ধার্ঘ্যে। অন্যদিন স্লোগানে স্লোগানে ভরে ওঠে পার্ক সার্কাস। আজ কিন্তু অনেকটাই স্তব্ধতা। আসলে ঠিক এক বছর আগে পুলওয়ামায় যেভাবে প্রাণ খুইয়েছিলেন দেশের সন্তানরা, তার জন্য মন কাঁদছে পার্ক সার্কাসেরও। প্রতিবাদীদের পাশে এসে দাঁড়াতে দিল্লির শাহীন বাগ থেকে ছুটে আসছেন শিক্ষক সঞ্জিত রাই। আরও পড়ুন: Valentine’s Day 2020: ভ্যালান্টাইন্স ডে-তে অফিসেই বিয়ে সারলেন আইএএস ও আইপিএস দম্পতি

একদিকে যখন পার্ক সার্কাসে এই ছবি, তখন ভ্যালেন্টাইন ডে উপলক্ষে নতুন ভাবনা নিয়েছে শাহীন বাগের আন্দোলনকারীরা। বৃহস্পতিবার 'মোদী তুম কব আয়োগে' (Modi Tum Kab aaoge?) গান দিয়ে শুরু হয় ভ্যালন্টাইনস ডে পালন। গত বছর এই দিনে পুলওয়ামার বিস্ফোরণ ঘটে। সেই জঙ্গি হামলার শহিদদের স্মৃতি শ্রদ্ধা জানিয়ে আগের দিনই ভ্যালেন্টাইনস ডে পালন করে শাহীন বাগ। মোদী যেন এখানে এসে তাঁর উপহার নিয়ে যান ও সবার সঙ্গে আলোচনায় বসেন, সেই দাবি তোলা হয়েছে।