Mamata Banerjee's PM Meeting: প্রথমে প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে সাক্ষাৎকার, একটু পরেই তাঁর বিরুদ্ধে ধর্ণা; মুখ্যমন্ত্রীর আচরণ নিয়ে প্রশ্ন তুলল বামেরা
মমতা ব্যানার্জি (Picture Credits: ANI)

কলকাতা, ১১ জানুয়ারি: আজ আঁটোসাঁটো নিরাপত্তার মাঝে দুদিনের কলকাতা সফরে পৌঁছোলেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি (Narendra Modi)। সৌজন্য সাক্ষ্যাৎ বিনিময় করতে সেখানে উপস্থিত হন মেয়র ও মন্ত্রী ফিরহাদ হাকিম (Firhad Hakim) এবং বিজেপির দিলীপ ঘোষ (Dilip Ghosh), মুকুল রায়, রাহুল সিনহা এবং অর্জুন সিং-ও। তারপর রাজভবনে হয় মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জি (Mamata Banerjee) ও প্রধানমন্ত্রীর বৈঠক। বৈঠক শেষে মুখ্যমন্ত্রী ছুটে গেলেন ধর্ণা মঞ্চে, বসলেন বিজেপির বিরোধিতায় প্রতিবাদে। মুখ্যমন্ত্রীর দ্বিচারিতা নিয়ে প্রশ্ন উঠেছে বাম মহলে। একদিকে নরেন্দ্র মোদির সঙ্গে এতদিনের বিরোধিতা উড়িয়ে পৌঁছে গেলেন বৈঠকে, অন্যদিকে এর বিরোধিতাও করছেন। সমর্থন করছেন, আবার করছেনও না।

আজ প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে বৈঠক শেষে মুখ্যমন্ত্রী জানান, মুখ্যমন্ত্রী হিসেবে এটা তাঁর প্রশাসনিক দায়িত্ব, তাই প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে দেখা করতে গেছেন তিনি। প্রশাসনিক দায়িত্ব পালন করতেই মেয়র ফিরহাদ হাকিমকেও পাঠানো হয়। বৈঠক প্রসঙ্গে তিনি জানান, প্রধানমন্ত্রীকে সিএএ ও এনআরসি তুলে নেওয়ার আবেদন জানিয়েছেন। কেন্দ্রের থেকে ২৮,০০০ কোটি টাকা প্রাপ্য রাজ্যের তা জানান। রাজ্যের সব বকেয়া টাকা মিটিয়ে দিতে বলেছেন কেন্দ্রকে। বুল্বুল বিপর্যয়ের বাকি টাকাও দিয়ে দিতে বলেছেন। ঠিক ১৫ মিনিটের বৈঠক শেষে একথা জানান মুখ্যমন্ত্রী। আরও পড়ুন, সিএএ ও এনআরসি তুলে নেওয়ার আবেদন জানান, প্রশাসনিক দায়িত্ব সামলাতেই প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে দেখা করেন দাবি মুখ্যমন্ত্রীর

এরপর সেখান থেকে পৌঁছে যান তৃণমূলের ধর্ণা মঞ্চে। ধর্ণা মঞ্চ থেকে তিনি আবার সিএএ ও এনআরসির বিরোধিতা করেন। তবে সকাল থেকে বামেদের বিক্ষোভকেও সমর্থন করেননি। বামকে কটাক্ষ করে তিনি বলেন, ওরা শুধু চেঁচাতে পারে। গাড়ি জ্বালাতে পারে। মমতা ব্যানার্জির আচরণ নিয়ে কটাক্ষ করেন সিপিএম নেতা মহম্মদ সেলিম (Md. Salim)। তিনি জানান, শীতের মরসুম, যাত্রার সিজন। মমতা ব্যানার্জি যাত্রা করছেন রাজ্যের মানুষের সাথে। এতদিন বলছিলেন ক্যা ক্যা ছি ছি, আজ গিয়ে বলে এলেন, ওসব ভুলে যান। ওটা কাছাকাছি। আজ সকাল থেকে বামেরা (CPIM) পথে নেমে 'গো ব্যাক মোদি' (Go Back Modi) প্ল্যাকার্ড ও স্লোগান দেয়। পোড়ানো হয় মোদির কুশপুতুল। জেএনইউ-র হামলা, সিএএ, এনআরসি,কর্মসংস্থানের দাবি নিয়ে বিক্ষোভ দেখায় তারা। গান, স্লোগানে মোদিজিকে ফেরত পাঠানোর স্লোগান দেয় তারা।ধর্ণা মঞ্চ থেকে মমতা ব্যানার্জি আবার রওনা দেবেন প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে আরেকটি অনুষ্ঠানে যোগদানের। তাঁর এই আচরণ নিয়ে নিন্দা উঠেছে নানা রাজনৈতিক মহলে।