Burdwan: কৃষি আইনের প্রতিবাদে জাতীয় সড়ক অবরোধ, যানজটে আটকে করোনা প্রতিষেধকের গাড়ি; বিতর্কের মুখে সিদ্দিকুল্লাহ চৌধুরি
বর্ধমানে জাতীয় সড়ক অবরোধ। Photo Source: ANI/Twitter

বর্ধমান, ১৩ জানুয়ারি: কেন্দ্রের ৩ কৃষি আইনের প্রতিবাদে দিল্লি সীমান্তে লাগাতার আন্দোলন করছেন কৃষকেরা (Farmers Protest)। হরিয়ানা, পঞ্জাব-সহ দেশের বিভিন্ন প্রান্ত থেকে কৃষকেরা এসে জড়ো হয়েছেন এখানে। এবার সেই আন্দোলনের আঁচ এসে পড়ল বাংলায়। রাজ্যের মন্ত্রী সিদ্দিকুল্লাহ চৌধুরির নেতৃত্বে রাস্তা অবরোধ করে চলল বিক্ষোভ-প্রতিবাদ। পূর্ব বর্ধমানের (East Burdwan) গলসিতে (Golsi) ঘটনাটি ঘটে। এই প্রতিবাদ-অবরোধের জেরে তীব্র যানজট হয়ে যায় বাঁকুড়াগামী এই জাতীয় সড়কে। জাতীয় সড়কে অবরোধ চলায় মাঝরাস্তায় যানজটে আটকে পড়ে করোনা টিকাবাহী গাড়ি। ঘটনার জেরে তীব্র ক্ষোভের মুখে পড়েন রাজ্যের মন্ত্রী। যদিও এই ঘটনা একেবারেই অনিচ্ছাকৃত বলে দাবি সিদ্দিকুল্লাহ চৌধুরির (Siddiqullah Chowdhury)।

গোটা ঘটনাটির ভিডিও সোশ্যাল মিডিয়ায় পোস্ট করেন বিজেপির কেন্দ্রীয় সাধারণ সম্পাদক কৈলাস বিজয়বর্গীয়। গলসি এলাকায় কেন্দ্রের নয়া কৃষি আইনের প্রতিবাদে ২ নম্বর জাতীয় সড়তে বিক্ষোভ চলছিল। প্রায় ৩ ঘণ্টা ধরে চলে এই অবরোধ। জাতীয় সড়ক অবরুদ্ধ হয়ে পড়ায় তীব্র অসন্তোষ প্রকাশ করেন আটকে পড়া গাড়ির যাত্রীরা। কয়েক'শো গাড়ি থমকে যায় ২ নম্বর জাতীয় সড়কে। সেই গাড়িগুলির পিছনেই আটকে যায় করোনা প্রতিষেধক বহনকারী গাড়িটিও। বিজয়বর্গীয়র ভিডিওটিতে দেখা যাচ্ছে, লাঠি হাতে পরিস্থিতি সামলানোর চেষ্টায় রাস্তায় নামেন খোদ মন্ত্রী। কিন্তু তাতেও সমস্যার কোনও সমাধান মেলেনি।

সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল সেই ভিডিও। পরিস্থিতি বেগতিক দেখে খোদ ময়দানে নামেন সিদ্দিকুল্লাহ চৌধুরি। কিন্তু তাঁর নির্দেশ অমান্য করেই জাতীয় সড়কে বসে বিক্ষোভ প্রতিবাদ দেখাচ্ছেন খোদ মন্ত্রীর দলের কর্মীরাই। এই ঘটনার জেরে দলের মধ্যেই তীব্র অসন্তোষের মুখে সিদ্দিকুল্লাহ চৌধুরি।